৫ মাস পর খুলে দেয়া হচ্ছে বান্দরবানের সব পর্যটন কেন্দ্র

73
৫ মাস পর খুলে দেয়া হচ্ছে বান্দরবানের সব পর্যটন কেন্দ্র
টানা প্রায় ৫ মাস পর অবশেষে পর্যটকদের জন্য খুলে দেয়া হচ্ছে পর্যটন কেন্দ্র। শর্তসাপেক্ষে আগামীকাল শুক্রবার সকাল থেকে খুলে দেয়া হবে জেলার হোটেল-মোটেল রিসোর্টসহ সব পর্যটন কেন্দ্র।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
আজ বৃহস্পতিবার (২০ আগস্ট) করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণ কমিটির বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

পর্যটন শিল্প খুলে দেয়ায় ঘোষণায় বান্দরবানে হোটেল, মোটেল, কটেজ, রেস্টুরেন্ট, ক্ষুদে ব্যবসায়ীসহ সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীদের মাঝে ফিরে এসেছে কর্মচাঞ্চল্য। এরই মধ্যে ব্যবসায়ীরা নিচ্ছেন স্বাস্থ্য বিধির আলোকে বিভিন্ন ব্যবস্থা।

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে শর্ত সাপেক্ষে পর্যটকদের জন্য আগামীকাল শুক্রবার সকাল থেকে জেলার সব পর্যটন কেন্দ্র হোটেল মোটেল গেস্ট হাউসগুলো খুলে দেয়া হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে পর্যটকরা পর্যটন কেন্দ্রগুলো ভ্রমণ করতে পারবে।
করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে ১৮ মার্চ থেকে জেলার সব আবাসিক হোটেল মোটেল গেস্ট হাউস পরিবহন ও পর্যটন কেন্দ্র বন্ধ করে দেয়া দিয়েছে জেলা প্রশাসন। এতে করে কর্মহীন হয়ে পড়ে পর্যটন সংশ্লিষ্ট কয়েক হাজারো বেশি শ্রমিক-কর্মচারী। কয়েকশত কোটি টাকার লোকসানের মুখে পড়ে পর্যটনসহ সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা।
পর্যটন নগরী হিসেবে খ্যাত বান্দরবানে রয়েছে ছোট বড় শতাধিক আবাসিক হোটেল মোটেল, গেস্ট হাউস। এসব প্রতিষ্ঠানে কর্মরত রয়েছে প্রায় কয়েক হাজার শ্রমিক-কর্মচারী। জেলাতে পর্যটকদের জন্য রয়েছে প্রায় ৪ শতাধিক চাঁদের গাড়ি এসব পরিবহনের সাথে সংশ্লিষ্ট রয়েছে ৫ শতাধিক শ্রমিক। লকডাউনের কারণে দীর্ঘ ৫ মাস তারা বেকার জীবন যাপন করেছে। অনেকে জীবিকার তাগিদে অন্য পেশায় চলে গেছে।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলাম বলেন, শুক্রবার সকাল থেকে শর্ত সাপেক্ষে পর্যটকদের জন্য পর্যটন কেন্দ্রসহ জেলার সব হোটেল মোটেল গেস্ট হাউস গুলো খুলে দেয়া হয়েছে। তবে স্বাস্থ্য বিধি মেনে পর্যটকরা পর্যটন কেন্দ্র গুলো ভ্রমণ করতে পারবে।

চস/স