এটিএম শামসুজ্জামানের ৮০তম জন্মদিন আজ

69

বাংলা চলচ্চিত্র ও নাটকের অসম্ভব জনপ্রিয় অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান। আজ তার ৮০তম জন্মদিন। ১৯৪১ সালের এই দিনে নোয়াখালীর দৌলতপুরে নানাবাড়িতে জন্ম হয়েছিল তার। পৈতৃক নিবাস লক্ষ্মীপুর জেলার ভোলাকোটের বড়বাড়ি। তার বাবা নুরুজ্জামান ছিলেন তৎকালীন নামকরা আইনজীবী। মা নুরুন্নেসা বেগম গৃহিণী। পাঁচ ভাই ও তিন বোনের মধ্যে শামসুজ্জামান ছিলেন সবার বড়।

অভিনয়ের পাশাপাশি এটিএম শামসুজ্জামান একাধারে লেখক, কাহিনিকার, সংলাপ রচয়িতা ও চলচ্চিত্র পরিচালক। তিনি দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থাবস্থা থেকে এখন বেশ খানিকটা সুস্থাবস্থায় রাজধানীর সূত্রাপুরে নিজ বাসাতে একান্তই নিজের মতো করে সময় কাটাচ্ছেন।

ষাটের দশকে লেখালেখি আর চলচ্চিত্র সাংবাদিকতায় জীবন শুরু করেন তিনি। প্রয়াত অভিনয় কুমার দাসসহ অনেক গুণী সাংবাদিকের হাতেখড়ি হয়েছে তাঁরই হাতে। তার সহকারী সাংবাদিক স্মৃতিময় বন্দ্যোপাধ্যায় ১৯৬৫ সালে ভারত পাকিস্তান যুদ্ধের সময় কলকাতা চলে গেলে তিনি সাংবাদিকতা ছেড়ে সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ শুরু করেন।

অভিনয় জীবনে প্রথমে ছোট ছোট শট দিতে গিয়ে বড় চরিত্র। ‘চোখের জলে’ এবং ‘নয়ন মনি’ ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে নিজেকে মেলে ধরেন। এরপর অভিনেতা হিসেবে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। অভিনয়ে ব্যস্ততা বাড়লেও লেখালেখি চালিয়ে যেতে থাকেন, অসাধারণ একজন লেখক এটিএম শামসুজ্জামান।

অভিনেতা, কাহিনিকার, চিত্রনাট্যকার ও সংলাপ রচয়িতা- কোনোটাতেই পিছিয়ে নেই এই গুণধর মানুষ। দেশ স্বাধীনের পর নির্মিত মুক্তিযুদ্ধের প্রথম ছবি ‘ওরা ১১ জন’ তারই লেখা।

প্রয়াত পরিচালক দীলিপ বিশ্বাস তার প্রায় প্রতিটি ছবির সংলাপ এটিএম শামসুজ্জামানকে দিয়ে চূড়ান্ত করতেন বলে জানা যায়। জন্মদিনে গুণী এই মানুষটিকে অনেক অনেক শ্রদ্ধা, শুভেচ্ছা এবং ভালোবাসা।

চস/আজহার