মালয়েশিয়ায় বিপাকে জাকির নায়েক

মালয়েশিয়ায় বেশ বিপাকে পড়েছেন ভারতের বিতর্কিত ধর্ম প্রচারক জাকির নায়েক। সোমবার দ্বিতীয় বারের মতো জবানবন্দি দেয়ার জন্য তাকে ডেকেছে মালয়েশিয়া পুলিশ। দেশটির সিআইডির পরিচালক দাতুক হুজির মোহাম্মদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। খবর দ্য স্টার।

সোমবার বেলা তিনটার দিকে মালয়েশিয়া পুলিশের সদর দফতরে দেখা করার কথা রয়েছে জাকির নায়েকের। পেনাল কোড ৫০৪ ধারা অনুযায়ী, তার জবানবন্দি নেয়া হবে। সাম্প্রতিক সময়ে এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতা দিতে গিয়ে মালয়েশিয়ায় বসবাসরত ভারতীয় হিন্দু এবং চীনাদের নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন জাকির নায়েক।

ওই অনুষ্ঠানে তিনি মালয়েশিয়ায় বসবাসরত চীনা বংশোদ্ভূত নাগরিকদের দেশে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানান। একই সঙ্গে তিনি বলেন যে, ভারতের সংখ্যালঘু মুসলিমদের চেয়ে মালয়েশিয়ার সংখ্যালঘু হিন্দুরা ১০০ গুণ বেশি অধিকার ভোগ করছেন।

প্রসঙ্গত, মালয়েশিয়ার ৬০ শতাংশ মুসলিম বাদে বাকি ৪০ শতাংশ মানুষের অধিকাংশই চীনা ও ভারতীয় বংশোদ্ভূত। তার এমন মন্তব্যকে ঘিরে সমালোচনা শুরু হয়েছে। এমন মন্তব্য করে তিনি মালয়েশিয়ার শান্তি নষ্ট করার চেষ্টা করছেন বলে বেশ কিছু অভিযোগের ভিত্তিতেই তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

কয়েক বছর ধরেই ভারত থেকে মালয়েশিয়ায় অবস্থান করছেন জাকির নায়েক। সেখানে তাকে স্থায়ী নাগরিকত্ব দেয়া হয়েছে। গত শুক্রবারও তার জবানবন্দি গ্রহণ করা হয়। জাকির নায়েক এমন বর্ণবাদী রাজনীতি নিয়ে আলোচনা করতে গিয়ে সীমা অতিক্রম করে ফেলছেন বলে মন্তব্য করেছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। এমনকি মালয়েশিয়ায় রাজনৈতিক বক্তৃতা দেয়া থেকে বিতর্কিত এই প্রচারকের বিরত থাকা উচিত বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

এখন পর্যন্ত জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে ১১৫টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এসব অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তও শুরু করেছে পুলিশ। যদি এটা প্রমাণ হয় যে, জাকির নায়েকের মন্তব্য ও কাজকর্ম মালয়েশিয়া শান্তি ও সম্প্রীতিতে আঘাত করেছে তাহলে তার নাগরিকত্ব বাতিল করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

চস/আজহার

শেয়ার করুন

The Post Viewed By: 67 People

Chattogram Somoy

চট্টগ্রাম থেকে পরিচালিত চট্টগ্রাম সময় একটি আধুনিক নিউজ পোর্টাল। ২৪ ঘন্টা খবরের সন্ধানে ছুটে চলা একদল সংবাদদাতা নিয়ে আমাদের যাত্রা শুরু হয়েছে ২০১৯ এর জুলাইয়ে। কোনো একটা নির্দিষ্ট দিক নয়, চট্টগ্রাম সময় কাজ করছে প্রতিটা দিক নিয়ে। আমাদের ভবিষ্যৎ পথচলায় আপনাদের সাথী হিসেবে পেতে চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *