ক্ষমতায় থেকেও আমাদের জনপ্রিয়তা বেড়েছে: শেখ হাসিনা

ক্ষমতায় থাকাকালে সাধারণত শাসক দলের জনপ্রিয়তা কমে। একমাত্র আওয়ামী লীগ দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থেকেও জনপ্রিয়তা বেড়েছে বলে মনে করেন দলটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দলের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে সূচনা বক্তব্যে শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন। রাজধানীর ইনিঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় এই অধিবেশন শুরু হয়েছে। এই অধিবেশনে আওয়ামী লীগের নতুন নেতৃত্ব বাছাই করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ক্ষমতা থাকলে অনেকের জনপ্রিয়তা কমে। কিন্তু বাংলাদেশ আওয়ামী লীগই একমাত্র দল যার জনপ্রিয়তা বেড়েছে। সেটা ধরে রাখতে হবে।’

‘জাতির পিতা দেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন, ক্ষুধা দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়ে তোলা এবং বিশ্বের দরবারে মর্যাদা নিয়ে চলবে তিনি এই লক্ষ্য নিয়ে দেশকে স্বাধীন করেছেন। আমাদের একটাই লক্ষ্য বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্ন পূরণ করা। সেটা আমরা পূরণ করবো। ক্ষুধা দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গড়ে তুলবো। যেন বাবা-মার আত্মা শান্তি পায়। লাখো শহীদের আত্মত্যাগ যেন বৃথা না যায়।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বিশ্বসভায় দেশের মানুষ স্থায়ীভাবে মাথা তুলে দাঁড়াতে পারে সেই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘১০ বছরে দেশে অনেক কাজ করেছি। দেশ অনেকদূর এগিয়েছে। এখন সংগঠনকে শক্তিশালী করতে হবে, মানুষের আস্থা বিশ্বাস অর্জন করতে হবে। আমাদেরকে সেই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করতে হবে। আওয়ামী লীগকে সেভাবে গড়ে তুলতে হবে। কে কী পেলাম সেই চিন্তা না করে মানুষের মৌলিক অধিকার পূরণে সবাইকে কাজ করতে হবে।’

বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে আরও অনেকদূর আমাদের এগিয়ে নিতে হবে।’

তিনি বঙ্গবন্ধুর হত্যা পরবর্তী ঘটনার বর্ণনা করে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরে দীর্ঘদিন দেশে হত্যা ক্যুর ষড়যন্ত্র চলছে। গণতন্ত্র নয়, কারফিউ গণতন্ত্র ও স্বৈরশাসন চলেছে। ২৯টা বছর জনগণের ভাগ্য নিয়ে যারা ছিনিমিনি খেলেছিল তাদের বিরুদ্ধে আমাদের সংগ্রাম করতে হয়েছে। দীর্ঘ ২১ বছর পর আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় আসে তখনই দেশের মানুষ বুঝতে পারে সরকার জনগণের সেবক, সরকার জনগণের কল্যাণ করতে পারে। কারণ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে জনগণ কিছু পায়, দেশের উন্নয়ন হয়। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে দেশ এগিয়ে যায়।’

বিএনপি-জামায়াত সরকারের সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘ক্ষমতায় যারা উড়ে এসে জুড়ে বসে, তারা শুধু নিজেদের ভাগ্য গড়ে। জনগণের কল্যাণ করতে পারে না। এই যে ঋণখেলাপি কালচার, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক ও মেধাবী ছাত্রদের হাতে অস্ত্র তুলে দিয়ে দেশকে ধ্বংসের পথে নিয়ে গিয়েছিল, যে দেশ লক্ষ্য নিয়ে চলতে না পারে, সেই দেশ যে ধ্বংস হয়ে যায়, সেটা প্রমাণ হয়েছে। একমাত্র আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পরেই দেশের মানুষের ভাগ্য উন্নত হয়, সেটা আজকে প্রমাণিত।’

তিনি সংগঠনকে শক্তিশালী করে গড়ে তোলার নির্দেশ দিয়ে তৃণমূলের নেতাকর্মীর উদ্দেশ্যে বলেন, ‘সংগঠনকে শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে হবে। জাতির পিতার আদর্শ নিয়ে চলতে হবে। বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী ও কারাগারের রোজনামচার পরে আমরা এখন মুক্তিযুদ্ধের সময় বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে পাকিস্তানের এসবি রিপোর্ট সংগ্রহ করে তা প্রকাশ করছি। এই রিপোর্টে স্বাধীনতা সংগ্রামের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ইতিহাস, অনেক নেতার নাম ও ঘটনা সেটা কালেট বিবর্তনে হারিয়ে গিয়েছে সেইসব তথ্য দেশের মানুষ ও তরুণ প্রজন্ম জানতে পারবে।’

চস/আজহার

শেয়ার করুন

The Post Viewed By: 40 People

Chattogram Somoy

চট্টগ্রাম থেকে পরিচালিত চট্টগ্রাম সময় একটি আধুনিক নিউজ পোর্টাল। ২৪ ঘন্টা খবরের সন্ধানে ছুটে চলা একদল সংবাদদাতা নিয়ে আমাদের যাত্রা শুরু হয়েছে ২০১৯ এর জুলাইয়ে। কোনো একটা নির্দিষ্ট দিক নয়, চট্টগ্রাম সময় কাজ করছে প্রতিটা দিক নিয়ে। আমাদের ভবিষ্যৎ পথচলায় আপনাদের সাথী হিসেবে পেতে চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *