ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মৃত দুইজন করোনা পজেটিভ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া আখাউড়ার এক নারী ও নাসিরনগরের এক প্রবাসীর রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। 

রবিবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিভিল সার্জন একরাম উল্লাহ এই তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ঢাকা থেকে জানানো হয়েছে নাসিরনগরের প্রবাসী ও আখাউড়ার মৃত নারীর রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।

আখাউড়ার ধরখার ইউনিয়নের রাণীখার গ্রামে জ্বর, সর্দি, কাশিসহ করোনার উপসর্গ নিয়ে গত ৯ এপ্রিল স্বামীর বাড়িতে ওই নারী মারা যান। এরপর থেকে ওই বাড়িসহ আশেপাশের এলাকা লকডাউন করা হয়। তবে ওই নারীর করোনা পজেটিভ হওয়ায় এলাকায় আতঙ্ক বেড়ে গেছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ওই নারী তার পরিবারের লোকজন নিয়ে ১০-১৫ দিন আগে আখাউড়ায় আসেন। বাড়িতে আসার পর থেকেই তিনি জ্বর, সর্দি, কাশিতে ভুগছিলেন। তবে পরিবারের লোকজন বিষয়টি গোপন রাখেন। ৯ এপ্রিল ভোররাতে তিনি মারা গেলে বিষয়টি জানাজানি হয়। খবর পেয়ে সংশ্লিষ্টরা ওই নারীসহ পরিবারের লোকজনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠান। এদিকে স্থানীয় লোকজন ঘটনার পর থেকেই ওই বাড়িসহ আশেপাশে এলাকায় লোক চলাচলে কঠোরতা অবলম্বন করেন। তারা বাঁশ দিয়ে এসব বাড়িতে যাওয়ার পথ আটকে দেন।

আরো পড়ুন: রাজশাহীতে শনাক্ত প্রথম করোনা রোগী

ইউএনও তাহমিনা আক্তার রেইনা জানান, ওই নারী করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। এলাকাটিতে লোক চলাচালে আরো কঠোরতা অবলম্বনের ব্যবস্থা নিতে তারা সেখানে যাচ্ছেন।

এদিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গত ৭ এপ্রিল শ্বাসকষ্টসহ করোনার নানা উপসর্গ নিয়ে নাসিরনগর উপজেলার জেঠা গ্রামে মালেশিয়া প্রবাসী মারা যান। পরবর্তীতে করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। রবিবার নমুনার ফলাফল হাতে পান সংশ্লিষ্টরা। ওই ব্যক্তি নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যের সংখ্যা দাঁড়ালো তিন জন। এছাড়া আরো সাতজন করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন। ইতিমধ্যেই ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে লকডাউন করা হয়েছে। যদিও এলাকার মানুষ সেভাবে লকডাউন মানছেন না।

চস/সোহাগ

শেয়ার করুন

The Post Viewed By: 92 People

Chattogram Somoy

চট্টগ্রাম থেকে পরিচালিত চট্টগ্রাম সময় একটি আধুনিক নিউজ পোর্টাল। ২৪ ঘন্টা খবরের সন্ধানে ছুটে চলা একদল সংবাদদাতা নিয়ে আমাদের যাত্রা শুরু হয়েছে ২০১৯ এর জুলাইয়ে। কোনো একটা নির্দিষ্ট দিক নয়, চট্টগ্রাম সময় কাজ করছে প্রতিটা দিক নিয়ে। আমাদের ভবিষ্যৎ পথচলায় আপনাদের সাথী হিসেবে পেতে চাই।