কুমিল্লায় অন্তঃসত্ত্বা নার্সকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণের চেষ্টা

35

কুমিল্লায় কর্মস্থল থেকে বাসায় ফেরার পথে অন্তঃসত্ত্বা নার্সকে রাস্তা থেকে তুলে জঙ্গলে নিয়ে গণধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই ঘটনায় মাথায় আঘাত পেয়েছেন ভুক্তভোগী। তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
বুধবার কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার কালির বাজার ইউপির মোস্তফাপুরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় রিয়াদ নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনার সঙ্গে জড়িতআরেক যুবক পলাতক।

স্থানীয়রা জানায়, কালির বাজার এলাকার একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে কাজ করেন ওই নার্স। বুধবার সন্ধ্যার পর কর্মস্থল থেকে বাড়িতে ফেরার পথে মোস্তফাপুর এলাকায় তাকে রাস্তা থেকে তুলে জঙ্গলে নিয়ে যায় চার যুবক। এরপর তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। তাদের সঙ্গে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে মাথায় আঘাত পান তিনি। এরপর দৌড়ে পালিয়ে পুলিশের কাছে যান।

ওই নার্সের মামা জানান, আমার ভাগ্নি আন্তঃসত্ত্বা। এ অবস্থায়ই তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। কুমিল্লা কোতোয়ালি থানা ও নাজিরা বাজার পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে রিয়াদ নামে এক যুবককে আটক করেন।

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. মাহবুব আলম বলেন, ভর্তির সময় ওই নার্স জানিয়েছেন- তাকে চারজন মিলে ধর্ষণের চেষ্টা করেছে। তিনি ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা। আমরা তাকে সেবা দিয়েছি। তিনি এখন সুস্থ আছেন।

কোতয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আনোয়ারুল হক বলেন, গণধর্ষণের চেষ্টার ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া পলাতক আরেক যুবককে ধরতে অভিযান চলছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

চস/আজহার