যমুনায় নৌকাডুবিতে নিখোঁজ ৫, জীবিত উদ্ধার ৬,

ভিজিএফের চাল নিয়ে ফেরার পথে জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জের যমুনায় নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজদের মধ্যে ছয় আরোহীকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখনো পাঁচজন নিখোঁজ রয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) সকালে যমুনার ১০ কিলোমিটার দূরে প্রজাপতির চর থেকে ওই ছয়জনকে উদ্ধার করা হয় বলে জানান জামালপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার নূর উদ্দিন অলি।

এর আগে বুধবার রাত ৯টার দিকে জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে উপজেলার ফুটানিবাজার ঘাট ছেড়ে যমুনা নদীতে এ নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। এরপর নিখোঁজদের সন্ধানে নামেন জামালপুর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

বৈরী আবহাওয়ার কারণে বুধবার রাত ১টায় নিখোঁজদের উদ্ধার অভিযান স্থগিত করা হয়।

দেওয়ানগঞ্জ থানার ওসি এমএম মইনুল ইসলাম জানান, অন্তত ২৮ যাত্রী নিয়ে চুকাইবাড়ী ইউনিয়ন থেকে ভিজিএফ চাল নিয়ে ফিরছিল নৌকাটি। পথে মাঝ নদীতে নৌকাটি ডুবে যায়। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৬ জনকে জীবিত উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে ফায়ার সার্ভিস।

স্থানীয় একজন ইউপি সদস্য জানান, যাত্রীদের সবাই ভিজিএফ চাল নিয়ে বাড়িতে ফিরছিলেন। ঘটনাস্থলে জামালপুর ও দেওয়ানগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি ও উদ্ধারকর্মী এবং স্থানীয়রা নৌকা নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে রাত ১২টা পর্যন্ত অনুসন্ধান চালিয়ে ১৯ জনকে জীবিত উদ্ধার করেন। পরে উদ্ধার করা হয় আরো চারজনকে। নৌকার বাকি যাত্রীরা এখনও নিখোঁজ।

চুকাইবাড়ী ইউনিয়নের যমুনা নদীর ফুটানি বাজার ঘাট এলাকার একাধিক সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ফুটানি বাজার ঘাট থেকে ২৮ জন যাত্রী নিয়ে একই ইউনিয়নের যমুনার পশ্চিম পাড়ের টিনেরচর গ্রামে যাচ্ছিলেন। যাত্রীরা সবাই ওই গ্রামের বাসিন্দা। তারা সবাই আজ বুধবার বিকেলে চুকাইবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ভিজিএফ চাল উত্তোলন করে একই নৌকায় বাড়িতে ফিরছিলেন। ফুটানি বাজার ঘাট থেকে যুমনা নদী পথে প্রায় সাত কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে টিনেরচর গ্রামে যেতে হয়। নদীর মাঝামাঝি ভেড়াখাওয়া মাথা নামক স্থানে নৌকাটি আকস্মিক ডুবে যায়।

চস/আজহার

শেয়ার করুন

The Post Viewed By: 75 People

Chattogram Somoy

চট্টগ্রাম থেকে পরিচালিত চট্টগ্রাম সময় একটি আধুনিক নিউজ পোর্টাল। ২৪ ঘন্টা খবরের সন্ধানে ছুটে চলা একদল সংবাদদাতা নিয়ে আমাদের যাত্রা শুরু হয়েছে ২০১৯ এর জুলাইয়ে। কোনো একটা নির্দিষ্ট দিক নয়, চট্টগ্রাম সময় কাজ করছে প্রতিটা দিক নিয়ে। আমাদের ভবিষ্যৎ পথচলায় আপনাদের সাথী হিসেবে পেতে চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *