ধর্ষণ মামলায় ফরিদপুরে তরুণের যাবজ্জীবন

ফরিদপুরে এক কিশোরীকে (১৫) ধর্ষণের দায়ে পিয়াস মিয়া (২১) নামে এক তরুণকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আদালত। রবিবার দুপুরের দিকে জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের হাকিম আলমগীর কবির এ আদেশ দেন।

রায় দেয়ার সময় এ মামলার একমাত্র আসামি পিয়াস মিয়া আদালতে হাজির ছিলেন। রায়ের পর তাকে জেলা কারাগারে পাঠিয়ে দেয়া হয়। পিয়াস মিয়া ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার নুরুল্লাগঞ্জ ইউনিয়নের ফুকুরহাটি গ্রামের বাসিন্দা।

মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, ২০১৭ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৬টার দিকে জেএসসির পরীক্ষার্থী ওই কিশোরী জেলার ভাঙ্গা উপজেলার নুরুল্লাগঞ্জ ইউনিয়নের উঁচা বাজার এলাকায় কোচিং সেন্টার থেকে পড়া শেষে বাড়ি ফিরছিল। পথে ফুকুরহাটি মিয়া বাড়ির সামনে গেলে পূর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা বখাটে পিয়াস ওই কিশোরীকে মুখে ওড়না পেঁচিয়ে রাস্তার পাশের ছন ক্ষেতে নিয়ে যায়। পরে তাকে সেখানে ধর্ষণ করে। এ সময় কিশোরীর চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে পিয়াস মিয়া পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় পরের দিন ২৪ সেপ্টেম্বর ওই কিশোরীর মা বাদী হয়ে পিয়াসকে একমাত্র আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ভাঙ্গা থানায় একটি মামলা করেন।

ওই বছর ২৬ নভেম্বর এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ভাঙ্গা থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুল্লাহ আজাদ আসামি পিয়াসের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফরিদপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পিপি স্বপন কুমার পাল বলেন, আদালত সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে পিয়াসের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

তিনি বলেন, জরিমানার টাকা আসামিকে পরিশোধ করতে হবে। এ ক্ষেত্রে নাদায়ের কোনো সুযোগ নেই। রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে এ মামলার বাদী ওই কিশোরীর মা সারমিন আক্তার কাজল বলেন, আমি এ রায়ে সন্তুষ্ট। আমরা ন্যায় বিচার পেয়েছি।

চস/আজহার

শেয়ার করুন

The Post Viewed By: 44 People

Chattogram Somoy

চট্টগ্রাম থেকে পরিচালিত চট্টগ্রাম সময় একটি আধুনিক নিউজ পোর্টাল। ২৪ ঘন্টা খবরের সন্ধানে ছুটে চলা একদল সংবাদদাতা নিয়ে আমাদের যাত্রা শুরু হয়েছে ২০১৯ এর জুলাইয়ে। কোনো একটা নির্দিষ্ট দিক নয়, চট্টগ্রাম সময় কাজ করছে প্রতিটা দিক নিয়ে। আমাদের ভবিষ্যৎ পথচলায় আপনাদের সাথী হিসেবে পেতে চাই।