পন্টিংয়ের মতে আমিরাতের গরমে প্র্যাকটিস বেশি করা উচিত হবে না

আইপিএলের ত্রয়োদশ সংস্করণ শুরু হতে আমার মাত্র দু’সপ্তাহ বাকি৷ ইতোমধ্যেই কোয়ারেন্টাইন শেষ করে প্র্যাকটিসে নেমে পড়েছে আইপিএলের দলগুলি৷ তবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রচণ্ড গরমে বেশি ট্রেনিং করা উচিত হবে না বলে মনে করেন দিল্লি ক্যাপিটালসের কোচ রিকি পন্টিং৷

পন্টিং মনে করেন, আইপিএল-এর অনেক আগেই প্রশিক্ষণ শুরু হতে পারে৷ তবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের উত্তাপের বিষয়টি বিবেচনা করে তিনি বলেন, দলের ট্রেনিংয়ে সময়কাল প্রতিটি সেশনের পরে কীভাবে “আকার ধারণ করবে” তার উপর নির্ভর করবে।

দিল্লি ক্যাপিটালসের প্রধান কোচ পন্টিং বলেন, ‘আমরা একটি ছোট স্কোয়াড পেয়েছি৷ তাই আমি আমাদের প্রশিক্ষণ সেশনগুলি গত বছরের চেয়ে আলাদাভাবে পরিচালনা করতে চাই। আমি ছেলেদের স্পষ্ট করে দিয়েছি যে, আমরা প্রথম তিন সপ্তাহের মধ্যে ওভার ট্রেন যাচ্ছি না। আমি বিশ্বাস করি, প্রথম খেলা পর্যন্ত আমাদের প্রস্তুতি ভেবেচিন্ত করতে হবে৷’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি নিশ্চিত করতে চাই যে, শারীরিক, প্রযুক্তিগত এবং কৌশলগতভাবে ছেলেরা প্রথম খেলায় শীর্ষে উঠতে চাই৷ এটি আমাদের কাছে একটি অস্বাভাবিক সময়৷ তিন সপ্তাহের মধ্যে আমার মনে হয় আমরা প্রথম খেলার আগে প্রায় ২০টি ট্রেনিং সেশন পাব৷ আমার মতে, যা অনেক বেশি৷ তাই আমরা কেবল ছেলেদের প্রতিটি ট্রেনিং সেশন শেষে আমাদের বুঝতে হবে৷’

পন্টিংয়ের কোচিংয়ে গত মৌসুমে প্লে-অফ খেলেছিল দিল্লি ক্যাপিটালস৷ যা ২০১২ মৌসুমের পর প্রথম দিল্লি তাদের প্রথম প্লে-অফ খেলে৷ অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক চান তার খেলোয়াড়দের মনে করুক, কীভাবে তারা গত মরশুমে সফল হয়েছিল৷ চলতি মৌসুমেও শ্রেয়স আইয়ারের নেতত্বে আইপিএলে মাঠে নামবে দিল্লি ক্যাপিটালস৷

এটা তাদের ইতিবাচক মনোভাব হিসেবে কাজ করবে বলেও মনে করেন পন্টিং৷ তিনি বলেন, ‘আমি নিশ্চিত চলতি মৌসুমেও আমরা গতবারের মতো পারফরম্যান্স করতে পারব৷ আমি মনে করি এটি সত্যই গুরুত্বপূর্ণ৷ আপনি যখন সাফল্য পাবেন তখন আপনি বুঝতে পারছেন কেন এটি আপনার পক্ষে রয়েছে। আমরা গত বছর থেকে এখনও আমাদের কাছে থাকা ছেলেদের উপর ব্যাংকিং করব৷ কারণ ইতিবাচক বিষয়গুলি মনে রাখা তাদের পক্ষে গুরুত্বপূর্ণ৷’

চস/আজহার

শেয়ার করুন

The Post Viewed By: 30 People

Chattogram Somoy

চট্টগ্রাম থেকে পরিচালিত চট্টগ্রাম সময় একটি আধুনিক নিউজ পোর্টাল। ২৪ ঘন্টা খবরের সন্ধানে ছুটে চলা একদল সংবাদদাতা নিয়ে আমাদের যাত্রা শুরু হয়েছে ২০১৯ এর জুলাইয়ে। কোনো একটা নির্দিষ্ট দিক নয়, চট্টগ্রাম সময় কাজ করছে প্রতিটা দিক নিয়ে। আমাদের ভবিষ্যৎ পথচলায় আপনাদের সাথী হিসেবে পেতে চাই।