না ফেরার দেশে টাইগারদের প্রথম অধিনায়ক

115
  |  সোমবার, জুলাই ২৯, ২০১৯ |  ২:২৯ অপরাহ্ণ
ads here

দীর্ঘদিন বার্ধক্যজনিত কারণে হাসপাতালে থাকা বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রথম অধিনায়ক শামীম কবির আর নেই।  এই খ্যাতিমান ওপেনার আজ সোমবার (২৯ জুলাই) শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন রাজধানীর সিটি হাসপাতালে।

ads here

১৯৭৭ সালের ৭ জানুয়ারি ঢাকা ষ্টেডিয়ামে (বর্তমানে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম) বাংলাদেশ ক্রিকেট দল ৩ দিনের একটি বেসরকারি টেষ্ট ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল ক্লার্কের নেতৃত্বাধীন ইংল্যান্ডের শক্তিশালী এমসিসি ক্রিকেট দল। ওটাই ছিল প্রথম বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। সেই দলের অধিনায়ক ছিলেন খ্যাতিমান ওপেনিং ব্যাটসম্যান শামীম কবির।

খেলোয়াড়ি জীবনে একজন ওপেনিং ব্যাটসম্যান হিসেবেই পরিচিত ছিলেন শামিম কবির। সেইসাথে মাঝেমাঝে উইকেটের পিছনে গ্লাভস হাতেও তিনি দায়িত্ব পালন করতেন। ১৯৬১ সালে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষিক্ত হওয়া শামিম কবির বাংলাদেশকে নিজেদের ইতিহাসের প্রথম ম্যাচে নেতৃত্ব দেন ১৯৭৭ সালে।

জাতীয় দলের হয়ে খেলার আগে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে মাত্র ষোল বছর বয়সে ইস্ট পাকিস্তানের জার্সি গায়ে অভিষেক ঘটে শামিম কবিরের। অভিষেকের পর ক্রিকেট ক্যারিয়ারের ব্যক্তিগত প্রথম হাফ সেঞ্চুরি পেতে তাকে অপেক্ষা করতে হয় তিন বছর। ১৯৬৪ সালের ডিসেম্বরে কারদার সামার ট্রফিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিনায়ক হিসেবে পিআইএ এর বিপক্ষে খেলা ৬৪ রানের ইনিংসটি ছিল তাঁর ক্যারিয়ারের প্রথম হাফ সেঞ্চুরি।

শামীম কবির নামে পরিচিতি পেলেও তার আসল নাম আনোয়ারুল কবির। জন্ম ১৯৪৫ সালে, নরসিংদীর বনেদি জমিদার পরিবারে। পূর্ব পাকিস্তানের হয়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক ১৯৬১ সালে। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে প্রথম ফিফটি (৬৪) ১৯৬৪ সালে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হয়ে পিআইএর বিপক্ষে। তবে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে শামীম কবিরের সর্বোচ্চ ইনিংস ৮৯ রানের। পূর্ব পাকিস্তান সবুজ দলের হয়ে পূর্ব পাকিস্তান রেলওয়ের বিপক্ষে তিনি এই ইনিংস খেলেছিলেন।

ক্রীড়াঙ্গনে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ১৯৯৯ সালে তিনি জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন। শুধু খেলোয়াড় হিসেবেই তার ক্রিকেট জীবন সীমাবদ্ধ নয়, সম্পৃক্ত হন বিসিবিতেও। ১৯৮২ ও ১৯৮৬ সালের আইসিসি ট্রফিতে পালন করেন বাংলাদেশ দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব। ঢাকার ক্লাব ক্রিকেটে ঠিকানা ছিল আজাদ বয়েজ ক্লাব।

চস/সোহাগ

ads here