৩-০ তেই হারল বাংলাদেশ!

133
  |  বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১, ২০১৯ |  ৩:৪৪ অপরাহ্ণ
ads here

শুরুতে ধাক্কা। মাঝে খুঁড়িয়ে চলার সংগ্রাম। তারপর শেষের দিকে এসে হঠাৎ শেষ! তিন ম্যাচে একই ভঙ্গির নতজানু ক্রিকেট খেলে হারল বাংলাদেশ। তিন ম্যাচেই হারের ব্যবধানটা বিশাল। সিরিজের হিসেবটাও অমনই আকাশ-পাতাল।

ads here

শ্রীলঙ্কা ৩, বাংলাদেশ ০!

দ্বিতীয় ম্যাচে হেরে সিরিজ হারানোর পর তৃতীয় এবং শেষ ম্যাচে তখন একটাই চিন্তা-লঙ্কায় হোয়াইটওয়াশের শঙ্কা!

সেই আশঙ্কাই সত্যি হলো। সিরিজের শেষ ম্যাচেও বাংলাদেশ হারলো ১২২ রানের বড় ব্যবধানে। প্রথম দুই ম্যাচে হারের ব্যবধান ছিলো ৯১ রান ও ৭ উইকেট।

সিরিজের এই পরিসংখ্যান জানাচ্ছে এই তিন ম্যাচে শ্রীলঙ্কা খেলেছে এবং জিতেছে। আর বাংলাদেশ শুধু অংশ নিয়েছে এবং হেরেছে!

প্রেমাদাসায় সিরিজের শেষ ম্যাচে টস জয়ী শ্রীলঙ্কা যেখানে ২৯৪ রান তুললো সেই একই উইকেটে খানিকবাদে খেলতে নেমে বাংলাদেশ যে ব্যাটিং করলো তাকে ‘ব্যাটিং’ বলে না। গুটিয়ে গেলো মাত্র ১৭২ রানে। তখনো ইনিংসের ১৪ ওভার বাকি!

রান তাড়ায় নেমে বাংলাদেশ যা করলো তাকে বলে উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে আসা। তামিম ইকবালের ফর্মে ফেরার শেষ চেষ্টাও সিরিজে কাজে লাগলো না। আর টানা দুই বাউন্ডারি হাঁকানোর পর এনামুল হক বিজয়ের মনে হলো তিনি যেন সব বলেই বাউন্ডারি হাঁকানোর জন্যই নেমেছেন!

ব্যস সেই কসরতেই উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে এলেন।

অফস্ট্যাম্পের বাইরের বলে খেলতে গিয়ে মুশফিক স্লিপে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন ১০ রানে। সব ম্যাচে তো আর মুশফিক প্রতিদিন একাই খেলে দেবেন না।

মোহাম্মদ মিথুন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান ও মেহেদি মিরাজ-মিডল এবং লেটঅর্ডারের এই চারজনই সিঙ্গেল ডিজিটে আউট। হাফ ক্রিজে পড়া শর্ট বলে মিথুন আউট হলেন। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন। মনে হলো আউট হয়ে বাঁচলেন তিনি!

২০ ওভারের মধ্যে বাংলাদেশ ৮৩ রানে ৫ উইকেট হারানোর পরই মুলত পরিস্কার হয়ে যায় এই ম্যাচের ফল কি হতে যাচ্ছে।

সৌম্য সরকার একপ্রান্তে খানিকটা লড়াই করলেন বলেই স্কোরটা কোনো মতো দুশোর কাছাকাছি পৌছালো।

সিরিজের তিন ম্যাচেই বাংলাদেশের ব্যাটিং একটা ব্যাখাই দিচ্ছে-এই দলটা যে ব্যাটিং ভুলে গেছে!

শ্রীলঙ্কার বোলিং এমন উচ্চ কোনো মানের নয়, যে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা প্রতি ম্যাচে গড়িয়ে পড়ে যাবে। ম্যাচ পরিস্থিতি অনুযায়ী ব্যাটিং করার মৌলিক নীতিই যে ভুলে গেলো পুরো বাংলাদেশ দল।

শুধু ব্যাটিং বলছি কেন? বাজে বোলিং- নতজানু ফিল্ডিং এবং মাঠে ক্রিকেটারদের শারীরিক ভাষা সবকিছুই জানান দেয় এই সিরিজে যেন হারতেই এসেছিলো বাংলাদেশ।

চস/আজহার

ads here