ডেঙ্গু পরিস্থিতি উদ্বেগজনক, তবে নিয়ন্ত্রণের বাইরে নয়: কাদের

137
  |  বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১, ২০১৯ |  ৩:৪৮ অপরাহ্ণ
ads here

দেশে বর্তমান ডেঙ্গু পরিস্থিতি উদ্বেগজনক হলেও তা নিয়ন্ত্রণের বাইরে নয় বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

ads here

বৃহস্পতিবার (১ আগস্ট) জাতীয় শিল্পকলা একাডেমিতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আয়োজিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে সংবাদ চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

বাংলাদেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে বিদেশি পত্র-পত্রিকার খবরের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ’এটিকে (ডেঙ্গু পরিস্থিতি) মিডিয়া মহামারি আর যা-ই বলুক, হাতের তালু দিয়ে আকাশ ঢাকা যায় না। পরিস্থিতি উদ্বেগজনক, তবে নিয়ন্ত্রণের বাইরে নয়।’

ডেঙ্গু পরিস্থিতির মধ্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের বিদেশ ভ্রমণ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলেন তিনি বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী হয়তো জরুরি কোনো কাজে বিদেশ গিয়েছিলেন, চলেও এসেছেন। মন্ত্রণালয় তো আর বসে থাকেনি। মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্টরা কাজ করেছে কি-না সেটি মুখ্য বিষয়।

শোকাবহ আগস্ট মাস নিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ১৫ আগস্ট বাংলাদেশের জন্য সবচেয়ে কলঙ্কিত অধ্যায়। সারা বিশ্বে যত রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড ঘটেছে তার মধ্যে সবচেয়ে নৃশংস হচ্ছে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা। আগস্ট মাস আসলেই জঙ্গিবাদ ও নাশকতা সৃষ্টিকারী যারা কি-না এখন নিষ্ক্রিয়, তারা আবার সক্রিয় হওয়ার তৎপরতা শুরু করে। অপশক্তিগুলো মাথাচাড়া দেয়, সক্রিয় হতে চায়।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডে সকল পৃষ্ঠপোষকতা চালিয়েছেন। সকল খুনিদের পুরস্কৃত করেছেন, বিদেশি দূতাবাসে চাকরি দিয়েছেন। ইনডেমনিটির মাধ্যমে এবং আইন প্রণয়ণ করে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার কাজ বন্ধ করেছেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও ঢাকার মেয়রদের পদত্যাগের বিষয়ে বিএনপি নেতাদের দাবির প্রসঙ্গে কাদের বলেন, বিএনপি নির্বাচনে ব্যর্থ, আন্দোলনে ব্যর্থ, তাদের নেত্রী খালেদা জিয়া দেড় বছর কারাগারে সে ব্যপারেও তারা কোনো কিছু করতে পারল না। তাই এই সকল ব্যর্থতা নিয়ে বিএনপির নেতাদের পদত্যাগ করা উচিত।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আগস্ট মাসব্যাপী সংবাদ চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধনী এ অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন যুবলীগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশীদ প্রমুখ।

চস/আজহার

ads here