কুষ্টিয়ায় নির্বাচনী প্রচারকালে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ, নিহত ১

14
ads here

কুষ্টিয়া পৌরসভা নির্বাচনে নির্বাচনী প্রচারকালে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে সোহেল সরকার (৩৫) নামে একজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত তিনজনকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ads here

নিহত সোহেল সরকার কাউন্সিলর প্রার্থী মাহবুবর রহমান পাখির সমর্থক ও একই এলাকার বজলু সরকারের ছেলে।

কুষ্টিয়া পৌরসভার ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী দুইজন। বর্তমান কাউন্সিলর রবিউল ইসলাম রবি ও মাহবুবর রহমান পাখি এই ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাত ১০টার দিকে পৌরসভার ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী মাহবুবর রহমান পাখি তার ভাইসহ সমর্থকদের নিয়ে সদর উপজেলার বারখাদা ত্রিমহোনী বটতলা মোড়ে নির্বাচনী প্রচার চালাচ্ছিল। এ সময় বর্তমান কাউন্সিলর ও প্রার্থী রবিউল ইসলাম রবি দলবল নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় স্থানীয় বাসিন্দা পাখি গ্রুপের সমর্থক সোহেল বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে তাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় প্রতিপক্ষ রবি গ্রুপের সমর্থকরা। এ ঘটনায় গুরুতর আহত সোহেল সরকারকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

এদিকে গুরুতর আহত অবস্থায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন পাখির ভাই মাজহারুল ইসলাম রমজান ও মোস্তাফিজুর রহমানসহ আরো একজন।

কুষ্টিয়া মডেল থানার (ওসি) আবুল কালাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, শুক্রবার রাতে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে সংঘর্ষের সময় আহত একজন মারা গেছেন। ঘটনায় হত্যার অভিযোগে মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন। এ ঘটনায় যারাই জড়িত থাক তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

 

চস/এএম

ads here