শ্বাসরোধ করে রাজশাহীতে স্ত্রী-মেয়েকে হত্যা, ঢাকায় গ্রেপ্তার

31
ads here

রাজশাহীতে পাঁচ মাসের মেয়েসহ স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগে একজনকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ads here

মঙ্গলবার সকালে ঢাকা গাবতলী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে রাজশাহী নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন রাজশাহীর পুঠিয়া থানার ওসি।

আগের রাত দেড়টার পর রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার গোপালহাটি গ্রামের ফকিরপাড়া এলাকায় ঘরের মধ্যে মা-মেয়ের লাশ পাওয়া যায়।

গ্রেপ্তার ফিরোজ আলী (৩৫) গোপালহাটি গ্রামের হাসিব আলীর ছেলে। সড়ক দুর্ঘটনায় তার এক পা কাটা পড়ার আগে আন্তঃজেলা এক বাস কম্পানিতে বাসের সুপারভাইজার ছিলেন তিনি। পরে ‘অতিমাত্রায় হেরোইনে আসক্ত’ হয়ে পড়েন ফিরোজ।

নিহতরা হলেন ফিরোজের স্ত্রী পলি খাতুন (২৫) এবং তাদের পাঁচ মাস বয়সী মেয়ে ফারিয়া। পলি পুঠিয়া পৌরসভার কৃষ্ণপর পশ্চিমপাড়ার জুলহাস আলীর মেয়ে। এসব তথ্য জানিয়ে রাজশাহীর পুঠিয়া থানার ওসি রেজাউল ইসলাম বলেন, তাদের আড়াই বছরের ছেলে ফাহিম আলী বেঁচে যায়।

সোমবার রাত দেড়টার দিকে ফাহিমের কান্না শুনে ফিরোজের বাবা-মা তাদের ঘরে ঢোকেন। এ সময় তারা পলি ও ফারিহাকে বিছানায় অচেতন অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেন।

তিনি জানান, মাঝে মধ্যে টাকা চাওয়ায় স্ত্রী পলির সাথে ঝগড়া করতেন ফিরোজ। প্রাথমিকভাবে পুলিশ ধারণা করছে, এই রাগে স্ত্রী ও মেয়েকে শ্বাসরোধে হত্যা করে থাকতে পারেন তিনি।

“গলায় আঘাতের চিহ্ন না থাকায় এবং পাশে বালিশ পড়ে থাকায় ধারণা করা হচ্ছে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।”

এদিকে, এলাকাবাসী জানায়, চার বছর আগে পলির সাথে বিয়ে বিয়ের আগে থেকেই মাদকাসক্ত ছিলেন ফিরোজ। বিয়ের পর থেকে নেশার টাকার জন্য বাড়ি বিভিন্ন জিনিসপত্র বিক্রি করতেন তিনি। এ নিয়ে স্ত্রীর সাথে ঝগড়া লেগেই থাকত। মাঝে মধ্যে ফিরোজ তার স্ত্রীকে শারীরিক নির্যানত চালাতেন বলেন তারা।

 

চস/আজহার

ads here