জঙ্গি সংগঠন আল ইসলামের দুই সদস্য গ্রেফতার

24
  |  বুধবার, জুন ২, ২০২১ |  ৪:৩৯ অপরাহ্ণ
ads here

নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের দুই সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিট।

ads here

মঙ্গলবার (১ জুন) রাতে খিলগাঁও থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। তাদের প্রথমজন হলেন- মো. ফয়েজুর রহমান (২৩)। তিনি ফয়েজ এবং আহমাদ আদনান নামেও পরিচিত। দ্বিতীয়জন হলেন মো. চান মিয়া (২৬)। তাদের কাছ থেকে চারটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।

সিটিটিসি ইউনিটের ইনভেস্টিগেশন বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) শেখ ইমরান হোসেন বলেন, গ্রেফতাররা আনসার আল ইসলামের সক্রিয় সদস্য। তারা নাশকতার পরিকল্পনায় খিলগাঁও এলাকায় সরকার ও রাষ্ট্রবিরোধী ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড পরিকল্পনায় লিপ্ত ছিলেন। নাস্তিক, ব্লগার ও পুলিশ সদস্যদের ওপর আক্রমণ করার উদ্দেশ্যে রেকি ও সার্বিক পরিকল্পনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ঘটনাস্থলে মিলিত হয়েছিলেন। তারা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অতি উগ্রবাদী বার্তা ছড়িয়ে আগ্রহীদের তালিকা করে এবং পরবর্তীতে তাদের সঙ্গে সখ্যতা বাড়ান।

তিনি বলেন, গ্রেফতাররা একপর্যায়ে পরিপূর্ণ মগজ ধোলাই করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারি এড়াতে তাদের (আগ্রহী) গোপন যোগাযোগ মাধ্যমে নিয়ে আসে। নাস্তিক, ব্লগার ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওপর নাশকতার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হলে তারা পরকালে সহজে জান্নাতে যেতে পারবেন বলে তারা বিশ্বাস করতেন। গ্রেফতারদের কাছ থেকে উদ্ধার করা মোবাইলে গুরাবা মিডিয়া, আল হিকমাহ মিডিয়া, আল খিদমাহ মিডিয়া প্রকাশিত উগ্রবাদী বার্তা সম্বলিত বইয়ের সফট কপি (পিডিএফ) পাওয়া গেছে। ফেসবুকে উগ্রবাদী প্রচারণার মাধ্যমে সদস্য সংগ্রহ ও বাছাই করে বিভিন্ন অ্যাপসে যোগাযোগ রক্ষা করতেন তারা।

তিনি আরও বলেন, গ্রেফতার ফয়েজ সিলেট সরকারি আলিয়া মাদ্রাসার ফাজিল প্রথম বর্ষের ছাত্র। গ্রেফতার চান মিয়া সোনাপুর ডিগ্রি কলেজে এইচএসসি পর্যন্ত লেখাপড়া করেছেন এবং তিনি পেইন্টিংয়ের কাজের আড়ালে নিষিদ্ধ সংগঠন আনসার আল ইসলামের কাজ করতেন। তাদের বিরুদ্ধে খিলগাঁও থানায় মামলা হয়েছে।

চস/আজহার

ads here