ডিপিএল

শীর্ষস্থান ধরে রাখলো তামিমরা

30
  |  সোমবার, জুন ১৪, ২০২১ |  ৪:১৯ অপরাহ্ণ
ads here

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে বেশ শক্ত অবস্থানে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। ঐতিহ্যবাহী দুই দল মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ও আবাহনী লিমিটেডের সঙ্গে হারলেও নিজেদের খেলা লিগের বাকি সবগুলো ম্যাচই জিতেছে প্রাইম ব্যাংক। আজ (সোমবার) তারা মাঠে নেমেছিল ওল্ড ডিওএইচএস স্পোর্টস ক্লাবের বিপক্ষে। এই ম্যাচের আগেই অবশ্য পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থানে ছিল তারা। আজ ২২ রানে ম্যাচ জিতে সেটি আরও মজবুত করলো।

ads here

বিকেএসপিতে হওয়া ম্যাচে আগে ব্যাট করে ওপেনার রনি তালুকদারের ফিফটিতে স্কোর বোর্ডে ১৪৭ রানের সংগ্রহ পায় প্রাইম ব্যাংক। তামিম ইকবালের ব্যাট থেকে আসে ২৫ রান। লক্ষ্য টপকাতে নেমে সুবিধা করতে পারেনি ওল্ড ডিওএইচএস। ১২৫ রানে থামে তাদের ইনিংস। এতে ২২ রানে ম্যাচ জিতে ৯ ম্যাচে ৭ জয়ে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষস্থান মজবুত করার পাশপাশি সুপার লিগে দৌড়ে এগিয়ে গেল প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব।

আরও পড়ুন:- আইসিসির মাসসেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হয়েছেন মুশফিক

ম্যাচ হারলেও টস হেসেছিল ওল্ড ডিওএইচএসের হয়ে। তবে প্রতিপক্ষকে আগে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় তারা। ব্যাট করাতে নামা প্রাইম ব্যাংক উদ্বোধনি জুটিতে ভালো শুরু পায়। তামিম আর রনি মিলিয়ে যোগ করেন ৫১ রান। ইনিংসের অষ্টম ওভারে ২৫ রান করে তামিম আউট হলে ভাঙে এই জুটি। ২৮ বল খেলে ৩টি চার মারেন তামিম।

অধিনায়ক এনামুল হক বিজয় ১৫ ও অমিত মজুমদার আউট হন ৬ রান করে। তার আগেই ব্যক্তিগত ফিফটি তুলে নেন রনি। কুড়ি ওভারের ফরম্যাটে এটি তার পঞ্চম অর্ধশতক। পরে অবশ্য ইনিংসটি আর টানতে পারেননি রনি, ফিরেছেন ৫৪ রান করে। ৩৯ বলের ইনিংসটি সাজান ৫টি চার ও ৩টি ছয়ের মারে।

পরে মোহাম্মদ মিঠুন ১৬ ও অলক কাপালি ১২ রান করে ফিরে গেলে ৭ উইকেট হারানো প্রাইম ব্যাংকের ইনিংস থামে ১৪৭ রানে। ওল্ড ডিওএইচএসের বিশ্বকাপজয়ী অনূর্ধ্ব-১৯ দলের স্পিনার রকিবুল হাসান ২টি ও আসাদুরজ্জামান পিয়েল নেন সমান ২টি উইকেট।

লক্ষ্য টপকাতে নেমে দলীয় ২৬ রানে দুই ওপেনার আনিসুল ইসলাম ইমন ও রাকিন আহমেদের উইকেট হারিয়ে বসে ওল্ড ডিওএইচএস। মাহমুদুল হাসান জয় ও রায়ান আহমেদ চেষ্টা চালালেও লাভ হয়নি। বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য জয় ২৬ ও রায়ান আউট হন ২১ রান করে। শফিফুল ইসলাম, মনির হোসেন, অলক কাপালি, নাহিদুলদের বোলিং তোপে সুবিধা করতে পারেননি বাকিরাও। ওল্ড ডিওএইচএসের ইনিংস থামে ১২৫ রানে।

২২ রানে জয় পায় প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। প্রাইম ব্যাংকের হয়ে শফিফুল ইসলাম, মনির হোসেন, অলক কাপালি, নাহিদুল প্রত্যেকে ২টি করে উইকেট নেন।

চস/আজহার

ads here