ডিপিএল

সুপার ওভারে জয়, সুপার লিগ নিশ্চিত মোহামেডানের

30
  |  বুধবার, জুন ১৬, ২০২১ |  ৩:১৩ অপরাহ্ণ
ads here

নাটকীয়তায় ভরপুর এবারের ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ আজ (বুধবার) সুপার ওভারের সাক্ষী হলো। সাকিব আল হাসান বিহীন মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব মুখোমুখি হয়েছিল খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতির। বৃষ্টির কারণে এই ম্যাচের দৈর্ঘ্য ছিল ১০ ওভারের। নির্ধারিত ওভারে জয় পায়নি কোনও দলই। সমান ৮৮ রানে থামে দুই দলের ইনিংস। পরে সুপার ওভারে আগে ব্যাট করে ১৩ রান করে খেলাঘর। শেষ বলে জয় তুলে নিয়ে টুর্নামেন্টের সুপার লিগ পর্ব নিশ্চিত করে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব।

ads here

১০ ওভারের ম্যাচে আগে ব্যাট করে ওপেনার আব্দুল মাজিদের ফিফটিতে স্কোর বোর্ডে ৮৮ রানের পুঁজি পায় মোহামেডান। ৮৯ রানের লক্ষ্য টপকাতে নেমে জয়ের পথেই হাঁটছিল খেলাঘর। তবে শেষ ওভারে এসে তালগোল পাকিয়ে ফেলে তারা। শেষ ৬ বলে ৬ রান প্রয়োজন পড়লে মোহামেডান পেসার আবু জায়াদের লরা ওভার থেকে ৫ রান্মের বেশি নিতে পারেননি ব্যাট হাতে ঝড় তোলা মাসুম খান ও ফরহাদ হোসেন। সেই ওভার থেকে ৫ রান নিলে টাই হয় ম্যাচ।

পরে সুপার ওভারে আগে ব্যাট করে ১ উইকেট হারিয়ে ১৩ রানের পুঁজি পায় খেলাঘর। ১৪ রানের লক্ষ্য টপকাতে নেমে শেষ বলে গিয়ে জয় তুলে নেন ইরফান শুক্কুর। পেসার খালেদ আহমেদের প্রথম বলেই ছক্কান শুক্কুর। দ্বিতীয় বল থেকে নেন ১ রান। তৃতীয় বলে ২ রান নেওয়া আব্দিল মজিদ ২ রান্ম নেওয়ার পর চতুর্থ বলে চার মেরে স্কোর কার্ডে সমতা আনেন। তবে পঞ্চম বলে তিনি আট হয়ে গেল আব্র শঙ্কা তৈরি হয়। তবে সে শঙ্কা উড়ে যায় শুক্কুরের ব্যাটে। শেষ বলে ১ রান নিয়ে ম্যাচ জেতান এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

এর আগে সাভারের বিকেএসপিতে লো স্কোরিং ম্যাচে আগে ব্যাট করে ইরফান হোসেনের বোলিং তোপে সুবিধা করতে পারেনি মোহামেডানের ব্যাটসম্যানরা, ব্যাটিং বিপর্যয়ে পরে সাদাকালোরা। ওপেনার আব্দুল মজিদ ছাড়া আর কোন ব্যাটসম্যানই দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি। মজিদ ৫৭ রান করে আউট হন। ৩০ বলের ইনিংসটি সাজান ৫টি চার ও ৪টি ছয়ের সাহায্যে। খেলাঘরের হয়ে ৪ উইকেট শিকার করেন ইরফান। ১টি করে উইকেট নেন সাদ্দাম ও টিপু।

১০ ওভারে ৮৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে প্রথম বলেই ইমতিয়াজ হোসেনের উইকেট হারায় খেলাঘর। এরপর দলের হাল ধরেন জহুরুল ইসলাম। আউট হওয়ার আগে ১৫ বলে ২৮ রান করেন তিনি। পরে বিপর্যয়ে পড়া খেলাঘরের হাল ধরেন মাসুম খান। কিন্তু তার ১৭ বলে ৩৩ রানের অপরাজিত ইনিংসটি জয় এনে দিতে পারেনি। খেলাঘর সমান ৮৮ রান করলে টাই হয় ম্যাচ। মোহামেডানের হয়ে ২টি উইকেট শিকার করেন তাসকিন আহমেদ।

 

চস/আজহার

ads here