‘সাহো’ দেখে বিদ্রুপের ঝড়

115
ads here

‘সাহো’ দিয়ে বলিউডে অভিষেক হয়েছে ‘বাহুবলী’ খ্যাত তারকা প্রভাসের। ৩৫০ কোটি বাজেটের এ ছবিকে ঘিরে প্রত্যাশার কমতি ছিল না। ছবির টিজার ও ট্রেলার দেখে অনেকেই ভবিষ্যতদ্বানী করেছিলেন বলিউডের এই ব্যয়বহুল সিনেমা অনেক রেকর্ডের জন্ম দেবে। কিন্তু ৩৫০ কোটি রুপি বাজেটের সঠিক ব্যবহার করতে পারেননি পরিচালক সুজিত। দর্শক ও চলচ্চিত্র বিশ্লেষকরা রায় দিয়েছেন, ছবিতে ধুন্ধুমার অ্যাকশন থাকলেও কোনো কাহিনী নেই, চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় যথেষ্ট অদক্ষতা ছিল। সমালোচনা হচ্ছে, প্রভাসের হিন্দি উচ্চারণ নিয়েও। কেউ কেউ বললেন, প্রভাসের উচিত ছিল চিত্রনাট্যটা আরও মনোযোগ দিয়ে পড়া। নায়িকা শ্রদ্ধা কাপুরের সঙ্গেও তার রসায়ন খুব একটা জমেনি ছবিতে।

ads here

ছবিটির দেখার পর দর্শকরা টুইটার-ফেসবুকে বিদ্রুপ করে নানা মন্তব্য করছেন। একজন বলেছেন, এজন্যই কাটাপ্পা ‘বাহুবলী’কে (এ চরিত্রে প্রভাস অভিনয় করেছিলেন) মেরেছিল যাতে সে সাহো করতে না পারে। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি! একজন লিখেছেন, এত ভুল কীভাবে করলেন নির্মাতা!

আনন্দবাজার ছবিটির রিভিও লিখতে গিয়ে শিরোনামই দিয়েছে, গল্প নেই, তিন ঘণ্টার লম্ফঝম্পতেও শেষ রক্ষা হল না প্রভাসের। এতে আরও বলা হয়, তিন ঘণ্টা ধরে নাগাড়ে ধুন্ধুমার অ্যাকশন, চেজিং সিকোয়েন্স, ফাঁকে ফাঁকে রোম্যান্স ইত্যাদির মাঝে অভিনেতাদের পাওয়া গেল না। স্টোরিলাইন যেখানে দুর্বল, ন্যারেশনও মন্থর গতির, সেই চিত্রনাট্য নিয়ে যে তিন ঘণ্টা হলে দর্শককে বসিয়ে রাখাটা কঠিন কাজ হতে পারে, তা আগেই ভাবা উচিত ছিল নির্মাতাদের।

তবে অনেকে প্রশংসাও করেছেন ছবির। ছবি দেখে তাদের পয়সা উসুল হয়েছে বলেও জানিয়েছেন।

চস/সোহাগ

ads here