অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টানা দ্বিতীয় জয় টাইগারদের

44
  |  বুধবার, আগস্ট ৪, ২০২১ |  ১০:৫০ অপরাহ্ণ
ads here

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে আজ বুধবার ( ৪ আগষ্ট) হেসে খেলে ৫ উইকেটের জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। এ জয়ের ফলে ৫ ম্যাচের সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল টাইগাররা। এর আগে মঙ্গলবার প্রথম ম্যাচে ২৩ রানে জিতেছিল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বাহিনী। আজ টাইগারদের জয়ে অভিনন্দন জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন অষ্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েড। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১২১ রান সংগ্রহ করে অস্ট্রেলিয়া। ১২২ রানের লক্ষ্য নিয়ে খেলতে নেমে ১৮.৪ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১২৩ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ।

ads here

বাংলাদেশের শুরুটা ভাল হয়নি। উদ্বোধনী জুটিতে নাইম শেখ এবং সৌম্য সরকার ৯ রান তোলে। রানের খাতা খোলার আগেই সাজ ঘরে ফিরে যান সৌম্য। এর পর সাকিব আল হাসান ১৭ বলে ২৬ রান করে এন্ডু টাইয়ের বলে আউট হন। মেহেদী হাসান ২৪ বল মোকাবেলা করে ২৩ রান করেন। এর পর সোয়ান এবং আফিফ জুটি বাংলাদেশের জয়ে অগ্রণী ভূমিকা রাখেন। ষষ্ট উইকেট জুটিতে সোয়ান এবং আফিফ ৪২ বলে ৫৬ রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন। নুরুল হাসান সোয়ান ২১ বলে ২২ রানে এবং আফিফ হোসেন ৩১ বলে ৩৭ রানে অপরাজিত থাকেন।

বাংলাদেশের বিপক্ষে গতকাল প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ২৩ রানের হারের পর রাতে ভাল ঘুম হয়নি অস্ট্রেলিয়ানদের। আর হবে বা কেমনে? টাইগারদের স্বল্প পূজিঁর বিপক্ষে মাত্র ১০৮ রানে গুড়িয়ে গিয়েছিল। সিরিজে সমতা আনতে আজ দ্বিতীয় ম্যাচে টস জিতে আগে ব্যাটিংই বেছে নেয় অস্ট্রেলিয়া। টাইগার বোলারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ১২০ রানে গুটিয়ে য়ায় অজিদের ইনিংস। টস জিতে আজ বেশ দেখেশুনে শুরু করেন তাদের দুই ওপেনার অ্যালেক্সকারে আর গ্লেন ফিলিপে। বুধবার মিরপুর শেরে বাংলায় এবারও স্পিন দিয়ে বোলিং শুরু করে বাংলাদেশ। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ আক্রমণে নিয়ে আসেন মাহেদি হাসানকে। টাইগার অফস্পিনারের প্রথম ওভার থেকে মাত্র ১ রান তুলতে পারে অস্ট্রেলিয়া।

দ্বিতীয় ওভারেই নাসুম আহমেদের ওপর চড়াও হন কারে, জোড়া বাউন্ডারি হাঁকান। তবে পরের ওভারে এসে এই ওপেনারকে সাজঘরের পথ দেখিয়েছেন মাহেদি। ওভারের তৃতীয় বলে ঘূর্ণি বুঝতে না পেরে কারে (১১ বলে ১১) তুলে দেন মিড অফে। নাসুম নেন সহজ ক্যাচ। ১৩ রানে প্রথম উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া। মার্শ-হ্যানরিকস জুটি অস্বস্তিতে ফেলেছিল বাংলাদেশকে। ঠিক তখনই ত্রাতা হয়ে আসেন সাকিব আল হাসান। ৩০ রান করা হ্যানরিকসকে বোল্ড করে ফেরালেন সাজঘরে। ১৫তম ওভারের দ্বিতীয় বলে স্লগ সুইপ খেলতে চেয়েছিলেন হ্যানরিকস, বল ব্যাট মিস করে তার শরীর স্পর্শ করে ভেঙে দেয় স্ট্যাম্প। ৩টি চার ও ১টি ছয়ে ২৫ বলে ৩০ রান করে হ্যানরিকস।

মোস্তাফিজের স্লোয়ারে বোল্ড হয়ে ফিরলেন জস ফিলিপে। বুঝতেই পারেননি ফিলিপে। খেলতে চেয়েছিলেন লেগ সাইডে কিন্তু ব্যাটে-বল এক করতে পারেননি। দ্য ফিজের স্লোয়ার ভেঙে দেয় ফিলিপের লেগ স্ট্যাম্প। ১৪ বলে ১০ রান করেন ফিলিপে। এর পর বিপদজনক হয়ে ওঠা মার্শকে সাজ ঘরে ফেরান শরিফুল ইসলাম। ৪২ বলে ৪৫ রান করে আউট হন মার্শ। অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েডকে বোল্ড করে ম্যাচে টাইগারদের নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজ। ম্যাথু ওয়েডকে আউটের পর অ্যাশটন আ্যাগারকে আউট করে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা জাগিয়ে তুলে ছিলেন মোস্তাফিজ। টাইগার বোলারদের মধ্যে মোস্তাফিজ ৩টি এবং শরিফুল ইসলাম ২ উইকেট লাভ করেন।

চস/আজহার

ads here