সম্মতি ছাড়া স্ত্রীর সাথে শারীরিক সম্পর্ক ধর্ষণ : ভারতের হাইকোর্ট

40
  |  বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১২, ২০২১ |  ৫:৩৩ অপরাহ্ণ
ads here

সম্মতি ছাড়া বিবাহিত স্ত্রীর সাথে শারীরিক সম্পর্ক ধর্ষণের আওতায় পড়ে বলে রায় ভারতের হাইকোর্টে।

ads here

শারীরিক সম্পর্কের সময় বিবাহিত স্ত্রী হলেও স্বামীকে তার সম্মতি নিতে হবে বলে রায় দিয়েছে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ কেরালার হাইকোর্ট। এক নারীর করা মামলায় বিচারক এই রায় দেন।

কেরালা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের বিচারপতি কওসার এডাপ্পাগাথ এবং বিচারপতি এ মুহাম্মদ মুস্তাক রায়ে বলেছেন, স্ত্রীর সম্মতি ছাড়া স্বামী শারীরিক সম্পর্ক করলে তা বৈবাহিক ধর্ষণের পর্যায়ে পড়ে। এই বৈবাহিক ধর্ষণের ফলে কেউ বিবাহ বিচ্ছেদেরও ন্যায়সঙ্গত আবেদনও করতে পারে। দেশটিতে এতদিন দুজনের মধ্যে বৈবাহিক সম্পর্ক থাকলে সম্মতি ছাড়া যৌনমিলনকে অপরাধ বলে গণ্য করা হতো না।

ভারতের অনেক নারী অধিকার কর্মীরা বলছেন, ভারতীয় উপমহাদেশে ধারণা আছে যে বৈবাহিক ধর্ষণের ধারণা সামনে আনলে পরিবার ভেঙে পড়বে। যে কারণে ভারতে শারীরিক সম্পর্কের সময় পুরুষেরা বিবাহিত স্ত্রীর অনুমতি নেয়াকে প্রয়োজন মনে করে না। ফলে, প্রতিনিয়ত নারীরা হিংস্রতার শিকার হচ্ছেন। সেদিক থেকে এটি একটি যুগান্তকারী রায়।

কেরালার এক নারী এই মামলাটি দায়ের করেছিলেন। মামলার বিবরণীর বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, ১২ বছর ধরে তিনি স্বামীর হিংস্র যৌন আকাঙ্ক্ষা মেটাতে গিয়ে ক্লান্ত। এ ব্যাপারে দুইবার পারিবারিক আদালতে গিয়েও প্রতিকার পাননি তিনি। অসুস্থ থাকলেও তার স্বামী তার সাথে জোরপূর্বক শারীরিক সম্পর্ক করতেন। স্বামী কখনোই তার মতামত জানতে চাইতেন না।

চস/আজহার

ads here