আজ ভোলায় টেলিমেডিসিন ও ই-এডুকেশন উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

156
  |  বুধবার, অক্টোবর ২, ২০১৯ |  ১:২৩ অপরাহ্ণ
করা
ads here

আজ থেকে শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর বাণিজ্যিক কার্যক্রম। আর বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ নেটওয়ার্কের আওতায় ভোলাসহ দেশের দুর্গম চরাঞ্চলে চালু হচ্ছে টেলিমেডিসিন ও ই-এডুকেশন সেবা।

ads here

আজ বুধবার (২ অক্টোবর) বেলা ১১টায় জেলা সদর থেকে প্রায় ১০০ কিলোমিটার দূরে চরফ্যাশন তেঁতুলিয়া নদীর দ্বীপ চরনিউলিনে টেলিমেডিসিন ও ই-এডুকেশন সেবার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ডিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে। একই সঙ্গে দেশের ৩৪টি টেলিভিশন চ্যানেলের সবকটি যুক্ত হচ্ছে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এ। বাণিজ্যিক সেবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড (বিসিএসসিএল) চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ ও ভোলার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

দ্বীপ এলাকায় নেটওয়ার্ক স্থাপন প্রকল্পের অধীনই টেলিমেডিসিন ই-এডুকেশন সেবা চালুর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

ভোলার সিভিল সার্জন ডা. রথীন্দ্রনাথ মজুমদার জানান, টেলিমেডিসিন সেবা উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনিসহ চরফ্যাশন হাসপাতালের গাইনি বিশেষজ্ঞ ডা. হোসনে আরা, দুজন গর্ভবতী মা, দুজন চর্মরোগে আক্রান্ত রোগীসহ বেশ কয়েকজন রোগীকে সেবা দেয়া হবে।

ঢাকার বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের গাইনি বিভাগের কয়েকজন অধ্যাপক সরাসরি রোগীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চিকিৎসাসেবা দেবেন। বিষয়টি ঢাকায় বসেই পর্যবেক্ষণ করবেন প্রধানমন্ত্রী।

অপরদিকে চরফ্যাশন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. রুহুল আমিন জানান, উদ্বোধন অনুষ্ঠান হচ্ছে চরফ্যাশন উপজেলার তেঁতুলিয়া নদীর বুকে দ্বীপ চরে প্রতিষ্ঠিত বাংলাবাজার চরলিউলিন নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে।

প্রথম দিন একটি কক্ষে টেলিমেডিসিন সেবা দেয়া হবে। অপরকক্ষে ই-এডুকেশন সেবা কার্যক্রম উদ্বোধন করা হবে।

ওই স্কুলের ৩০ শিক্ষার্থী ই-এডুকেশনে অংশ নেবে। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে সরাসরি কথা বলবেন প্রধানমন্ত্রী।

ই-এডুকেশন সেবা প্রকল্পের মাধ্যমে দুর্গম ও বিচ্ছিন্ন অঞ্চলের শিক্ষার্থীরা দেশসেরা স্কুলের শিক্ষকদের টিচিং পাবে।

এদিকে এসব কার্যক্রম বাস্তবায়নের জন্য ইতিমধ্যে চরলিউনিনের ওই স্কুলে শক্তিশালী এন্টিনাসহ ৩০ ওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনক্ষম সোলার প্যানেল স্থাপন করা হয়েছে। শক্তিশালী ইন্টারনেট সার্ভিস চালু করা হয়।

এসব কার্যক্রমকে ঘিরে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মধ্যে।

চস/আজহার

ads here