ছাত্রী নির্যাতন অভিযোগ ববির ১ শিক্ষক ও ৫ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে

169
নির্
ads here
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) গণিত বিভাগের এক প্রভাষক ও ৫ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে শারীরিক ও যৌন নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় অভিযুক্তদের নাম উল্লেখ করে ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা সোমবার রাতে মেট্রোপলিটনের বন্দর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বন্দর থানার ওসি মো. আনোয়ার হোসেন বলেছেন, এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

ads here

অভিযুক্তরা হলেন- প্রভাষক সুজিত কুমার বালা, আলিম সালেহীন, আরিফুল ইসলাম, আবদল্লাহ ফিরোজ, মো. হাফিজ এবং আসাদুজ্জামান।

অভিযোগে বাদী উল্লেখ করেন, গত ১ মার্চ বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের একটি কক্ষে পরীক্ষা শেষ হওয়ার নির্দিষ্ট সময়ের আগেই তার মেয়ের উত্তরপত্র জোর করে টেনে নিয়ে তাকে হল থেকে বের করে দেন প্রভাষক সুজিত কুমার বালা। হল থেকে বেড়িয়ে সিঁড়ি বেয়ে নামার সময় সুজিত কুমারের যোগসাজশে মাস্ক পরিহিত আলিম সালেহীন, আরিফুল ইসলাম, আবদল্লাহ ফিরোজ, মো. হাফিজ এবং আসাদুজ্জামানসহ অন্যান্যরা তার মেয়ের ওপর অতর্কিতে হামলা চালায়।

আরো পড়ুন: জাপান সফর স্থগিত প্রধানমন্ত্রীর

হামলাকারীরা তার মুখে কাপড় গুঁজে দিয়ে তার হাতে থাকা জ্যামিতি বক্সের সুচালো কাটা দিয়ে তার বুকে, পিঠে এবং নিতম্বে খুঁচিয়ে আহত করে। তারা তার শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়। তার তলপেটে, কোমরে এবং ঊরুতে আঘাত করে। একজন তার ঘাড়ে কামড় দেয়।

গুরুতর জখম অবস্থায় বাসায় ফিরে যায় সে। নিরাপত্তাহীনতার কারণে ওই দিন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়নি। এরপর তার অবস্থার অবনতি হলে ৪ মার্চ শেরে-ই বাংলা মেডিকেলে ভর্তি করা হয় তাকে। পরদিন ৫ মার্চ উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়া হয় তাকে।

এদিকে নির্যাতিতার ভাই অভিযোগ করেছেন, দুই দিন ধরে তার বাবা অভিযোগ নিয়ে বন্দর থানায় ঘুরছেন। পুলিশের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা নারী নির্যাতনের ধারা বাদ দিতে বলা হয়েছিল। কিন্তু তার বাবা অটল থাকলে পুলিশ অভিযোগ গ্রহণ করে। তবে সার্ভারে সমস্যার কারণ দেখিয়ে পুলিশ মামলা রুজু করতে সময়ক্ষেপণ করছে।

এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের গঠিত তদন্ত কমিটির সদস্য মার্কেটিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মহিউদ্দিন সাব্বির ওই ছাত্রীর বাবার কাছে প্রভাষক সুজিত কুমার বালাকে মামলায় আসামি না করার অনুরোধ করেছেন বলে ভুক্তভোগী পরিবার অভিযোগ করেছে। তবে মহিউদ্দিন সাব্বির এই অভিযোগ অস্বীকার করে তদন্তকাজে সহযোগিতার অনুরোধ করেছেন।

চস/আজহার

ads here