করোনার উপসর্গ দেখা গেলে কর্মীকে বাধ্যতামূলক ছুটি দেওয়ার নির্দেশ

161
করোনার উপসর্গ দেখা গেলে কর্মীকে বাধ্যতামূলক ছুটি দেওয়ার নির্দেশ
ads here
নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণের উপসর্গ দেখা দিলে কর্মীকে তাৎক্ষণিকভাবে বাধ্যতামূলক ছুটি দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।

রবিবার শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়। একইসঙ্গে ওই কর্মীকে কোয়ারেনটাইনে রাখার ব্যবস্থা করে তার চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপও নিতে বলা হয়েছে সংশ্লিষ্ট মালিকপক্ষকে।

ads here

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে শ্রমঘন শিল্পখাতের মালিকদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রণালয়।

আরো পড়ুন: ধর্ষক মজনুর বিরুদ্ধে চার্জশিট

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের মহাপরিদর্শক, শ্রম অধিদফতর এবং শিল্প পুলিশের মহাপরিচালক, বাংলাদেশ এমপ্লয়ার্স ফেডারেশন, বিজিএমইএ, বিকেএমইসহ শ্রমঘন সব খাতের সভাপতি বরাবর শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় থেকে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

ওই চিঠিতে বিশেষত তৈরি পোশাক, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, হিমায়িত ও প্লাস্টিক পণ্যসহ শ্রমঘন শিল্পখাতের সব কর্মীকে দেহের তাপমাত্রা পরিমাপক থার্মাল স্ক্যানার ব্যবহারের মাধ্যমে পরীক্ষা করে কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ করানোর ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে মালিকপক্ষকে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হলে এবং সর্দি, কাশি ও শ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা থাকলে অর্থাৎ করোনাভাইরাস সংক্রমণের উপসর্গ দেখা দিলে তাৎক্ষণিকভাবে ওই কর্মীকে বাধ্যতামূলক ছুটি দিতে হবে। তাকে কোয়ারেনটাইনে রেখে চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাও নিতে হবে মালিকপক্ষকে।

এছাড়া কর্মক্ষেত্রে নিয়মিত বিরতিতে হাত ধোয়া, আইইডিসিআর নির্দেশিত উপায়ে হাঁচি-কাশি দেওয়া, করমর্দন বা কোলাকুলি থেকে বিরত থাকা, জনসমাগম পরিহার করা এবং সর্বোপরি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার বিষয়ে কর্মীদের উৎসাহিত করা এবং এ বিষয়ে সহযোগিতা করতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে অনুরোধ জানানো হয়েছে চিঠিতে।

চস/সোহাগ

ads here