চট্টগ্রামের ৬ হাজার ছাড়ালো করোনা রোগী

281
  |  শনিবার, জুন ২০, ২০২০ |  ১:১৪ অপরাহ্ণ
করোনা
ads here

চট্টগ্রামে মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ছয় হাজারের মাইলফলক অতিক্রম করলো। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ১৮৭ জন নিয়ে এই সংখ্যা এখন ৬০৯৮। এর মধ্যে নগরের ৪১৪৭ জন এবং চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলার ১৯৫১ জন। একই সময়ে চট্টগ্রামে করোনায় মৃত্যু হয়েছে আরও ৩ জনের, যাদের ২ জন নগরের এবং একজন উপজেলার। ফলে মৃত্যুর সংখ্যা এসে দাঁড়ালো ১৩৯ জনে। ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে মুক্তি পেয়েছেন আরও ২০ জন। আর তাতে করে চট্টগ্রামে এখন পর্যন্ত করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৫৯০ জন।

ads here

শনিবার (২০ জুন) সকালে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, চট্টগ্রামের চারটি ল্যাব এবং কক্সবাজারের একটি ল্যাবে সর্বমোট ৭৭৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় আরও ১৮৭ জনের দেহে করোনাভাইরাস পজিটিভ পাওয়া গেছে। নতুন শনাক্তদের মধ্যে নগরের ৯২ জন এবং বিভিন্ন উপজেলার ৯৫ জন। আক্রান্তের দিক দিয়ে এই নিয়ে তৃতীয়বারের মতো নগরকে ছাড়িয়ে গেল উপজেলা।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় শনাক্ত হওয়াদের মধ্যে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সবচেয়ে বেশি। সেখানে ২১৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৫৪ জনের করোনা পজিটিভ মিলেছে। যাদের মধ্যে ৪৯ জনই নগরের ও বাকি ৫ জন বিভিন্ন উপজেলার।

একইদিনে, ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি)-তে ২৬৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। সেখানে করোনা পজিটিভ রোগী পাওয়া যায় ৪২ জনের দেহে। যাদের মধ্যে ২০ জন নগরের ও ২২ জন বিভিন্ন উপজেলার।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ইউনিভার্সিটির (সিভাসু) ল্যাবে ১৫৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে করোনাভাইরাসের জীবাণু পাওয়া গেছে ৩৯ জনের শরীরে। এদের মধ্যে ৪ জন নগরের ও ৩৫ জন বিভিন্ন উপজেলার।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ১২৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪৯ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। যাদের মধ্যে নগরের ১৯ জন ও বিভিন্ন উপজেলার ৩০ জন।

এছাড়া, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৯ জনের নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে ৩ জনের। যাদের সবাই সাতকানিয়ার।

অন্যদিকে, এদিন চট্টগ্রামের বেসরকারি করোনা পরীক্ষাকেন্দ্র ইম্পেরিয়াল হাসপাতালের লাবের করোনা পরীক্ষার ফলাফলের কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।

উপজেলা পর্যায়ে নতুন করোনা শনাক্ত ৯৫ জনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বাঁশখালী উপজেলায়। সেখানে ২৯ জনের দেহে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়। এছাড়া পটিয়ায় ১৫ জনের দেহে করোনার জীবাণু পাওয়া য়ায়। অন্যান্য উপজেলাগুলোর মধ্যে হাটহাজারী উপজেলায় ১২ জন, রাউজানে ১১ জন, ফটিকছড়িতে ১০ জন, চন্দনাইশের ৬ জন, আনোয়ারার ৫ জন, সাতকানিয়ায় ৪ জন এবং বোয়ালখালী, রাঙ্গুনিয়া ও সীতাকুণ্ডে ১ জন করে করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন।

চস/আজহার

ads here