কুমিল্লায় দুই সিটি কাউন্সিলরসহ নতুন আক্রান্ত শতাধিক, মৃত্যু ৪ জনের

96
  |  মঙ্গলবার, জুন ২৩, ২০২০ |  ১২:৩০ অপরাহ্ণ
কুমিল্লায় দুই সিটি কাউন্সিলরসহ নতুন আক্রান্ত শতাধিক, মৃত্যু ৪ জনের
ads here
করোনার হটস্পট কুমিল্লায় মৃত্যু ও আক্রান্ত দিন দিন বেড়েই চলছে। সোমবার পর্যন্ত জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বশেষ তথ্য মতে, জেলায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়ে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে শুধু সরকারী তথ্য অনুসারে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৩ জনে। তবে উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়ার সংখ্যা আরো অনেক বেশি।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা গেছেন ছয়জন। এদিকে নতুন করে জেলায় ১১১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে সিটিতেই আক্রান্ত হয়েছেন কুসিকের দুই কাউন্সিলরসহ ৭৪ জন। এ নিয়ে জেলায় আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়িয়েছে দুই হাজার ৭৯২ জনে।

ads here

গতকাল বিকেলে এসব তথ্য জানান কুমিল্লা সিভিল সার্জন ডা. মোঃ নিয়াতুজ্জামান।

আরো পড়ুন: ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৩৮, সংক্রমিত ৩৪৮০

সিভিল সার্জন আরো জানান, করোনার পরীক্ষায় রোববার বিকাল পর্যন্ত প্রাপ্ত ফলাফলে জেলায় ১১১ জনের পজেটিভ রেজাল্ট এসেছে। এর মধ্যে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর জমির উদ্দিন খান জম্পি ও গোলাম কিবরিয়াসহ ৭৪ জন, চৌদ্দগ্রামে ছয়জন, নাঙ্গলকোটে ২৬, লালমাইয়ে চার ও সদর দক্ষিণে একজন। মৃত্যু হয়েছে সিটিতে দু’জন, আদর্শ সদরে ও চান্দিনায় একজন করে। এ নিয়ে মৃত্যু বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৩ জনে।

তিনি আরো জানান, এ পর্যন্ত মোট ১৬ হাজার ৬৫২ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়, রিপোর্ট এসেছে ১৫ হাজার ১২৬ জনের। এর মধ্যে পজেটিভ এসেছে দুই হাজার ৭৯২ জনের। সরকারী হিসেবে মৃত্যু হয়েছে ৮৩ জনের এবং ২৪ ঘণ্টায় ২২ জন সুস্থ হওয়াসহ এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৭৯৯ জন।

এদিকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সহকারি সার্জন ডা. মুক্তা রানী ভূঁইয়া জানান, হাসপাতালের কোভিড-১৯ ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসের আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে এক নারীসহ ছয়জন মারা গেছেন। এর মধ্যে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আইসিইউতে পাঁচজন এবং অপর একজন আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। মৃতরা হচ্ছেন নগরীর ছোটরা এলাকার পারভীন আক্তার, সদর দক্ষিণ উপজেলার মোস্তাক আহমেদ, হাজী মোঃ আবুল হোসাইন ও মোসলেম। এছাড়াও চাঁদপুর জেলার সদর উপজেলার আলমগীর হোসেন ও হাজীগঞ্জ উপজেলার নজরুল ইসলাম।

তিনি আরো জানান, গত ৩ জুন ১০টি আইসিইউ শয্যাসহ ১৫৪ শয্যা বিশিষ্ট করোনা ইউনিট চালুর পর এ পর্যন্ত পর্যন্ত চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনা উপসর্গ নিয়ে ৭০ এবং আক্রান্ত হয়ে ১৩ জন মারা গেছেন।

চস/স

ads here