গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কর্মকর্তাদের ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর ডেকেছে

130
  |  রবিবার, জুলাই ৫, ২০২০ |  ১:২০ অপরাহ্ণ
গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কর্মকর্তাদের ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর ডেকেছে
ads here
গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কিট নিয়ে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তাদের আলোচনার জন্য ডেকেছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর। আজ রোববার এ বিষয়ে আলোচনা হবে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ও কোভিড-১৯ র‍্যাপিড ডট ব্লট কিট প্রকল্পের সমন্বয়ক ডা. মুহিব উল্লাহ খোন্দকার।

ডা. মুহিব উল্লাহ খোন্দকার বলেন, ‘আলোচনার জন্য আমরা আবেদন করেছিলাম। তাঁরা অ্যাপয়েন্টমেন্ট শিডিউল দিয়েছেন। অ্যান্টিবডি কিট ফল প্রকাশপরবর্তী বৈঠকের জন্য আমাদের ডাকা হয়েছে।’

ads here

আরো পড়ুন: করোনা শনাক্তে কার্যকর নয় গণস্বাস্থ্যের কিট: বিএসএমএমইউ

গণস্বাস্থ্যকে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরে ডাকার বিষয়টি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দপ্তরপ্রধান জাহাঙ্গীর আলম মিন্টুও জানিয়েছেন।

আজ রোববার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ডা. জাফরুল্লাহর ঘনিষ্ঠ মিন্টু বলেন, ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রোববার গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের আপডেটেড অ্যান্টিবডি কিটের তথ্য-উপাত্ত জানতে কর্মকর্তাদের ডেকেছেন। আজ ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর যদি কিটের অনুমতি দেয়, তা হলে গণস্বাস্থ্য ১৫ দিনের মধ্যে পাঁচ হাজার অ্যান্টিবডি কিট তৈরি করবে। গণস্বাস্থ্যের গবেষকরা এরই মধ্যে ঔষধ প্রশাসনের নির্দেশিকা বজায় রাখার জন্য অ্যান্টিবডি কিট আপডেট করেছে বলেও জানান মিন্টু।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর কিটের বিষয়ে সরকারি এ প্রতিষ্ঠান পুরোপুরি সন্তুষ্ট হবে এবং অনুমতি দেবে বলে আশাবাদী বলে জানান মিন্টু।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, ‘কিট উন্নয়ন দলের প্রধান বিজ্ঞানী বিজন কুমার শীলের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তাঁরা কিটের সংবেদনশীলতা আরো বৃদ্ধি করেছেন। এখন এটি অ্যান্টিবডিটিকে আরো দক্ষতার সঙ্গে শনাক্ত করতে পারে।’

চস/স

ads here