ফেসবুকে বাংলাদেশের প্রতিনিধি হলেন দিয়া

93
  |  মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ৮, ২০২০ |  ৫:৪১ অপরাহ্ণ
ads here

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের বাংলাদেশ বিষয়ক কর্মকর্তা নিয়োগ পেয়েছেন শাবহানাজ রাশিদ দিয়া। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওয়ান ডিগ্রি ইনিশিয়েটিভ প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে শাবহানাজ রাশিদ দিয়া সুপরিচিত। বাংলাদেশে দায়িত্ব পালনে তাকে নিয়োগ দিয়েছে ফেসবুক পাবলিক পলিসি বিভাগ। সবশেষ ফেব্রুয়ারিতে এই কর্মকর্তাকে নিয়োগ দেয় ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। তিনি বাংলাদেশ অ্যাফেয়ার্স দেখাশোনা করবেন। ফেসবুকে অবশ্য আরও একজন বাঙালি কর্মকর্তা আছেন। তবে বাংলাদেশ অ্যাফেয়ার্স নজরদারিতে প্রথম কোনো বাঙালি নারীকে নিয়োগ দেয়া হলো।

ads here

শাবহানাজ রাশিদ দিয়া বাংলাদেশ ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটিতে পড়াশোনা করেছেন। পরে যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান। সেখানে ইউনিভার্সিটি অব বার্কেলেতে পড়াশোনা করেন। গুগল ও টুইটারে কাজ করার পূর্ব অভিজ্ঞতা আছে তার। নিজের এনজিও ছিল। তিনি সেখানে ১০ বছর প্রধান ছিলেন। রিপোর্টার ও সাব-এডিটর হিসেবেও ইংরেজি দৈনিক ডেইলি স্টারে প্রায় ১৪ বছর কাজ করেছেন দিয়া। ‘বিটস অব মি’ নামে বই লিখেছেন তিনি। যা পাঠকপ্রিয় হয়।

নিজের কাজের অভিজ্ঞতা প্রসঙ্গে দিয়া বলেন, ‘বড়দের কাছে নিজের আইডিয়া নিয়ে সবসময় ছুটেছি। কিন্তু তাদের অবহেলায় ভেঙে পড়িনি। নিজের আইডিয়া প্রতিষ্ঠায় চেষ্টা করেছি। মেয়েরা নিজেদের আইটি কাজের ক্ষেত্রে দুর্বল ভাবেন। এটা মোটেই ঠিক নয়। কারণ আইটি খাতে একজন মেয়ে সংসারের মতো মাল্টি টাস্ক করতে পারেন।’

সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) সিঙ্গাপুরে ফেসবুকের আঞ্চলিক সদর দপ্তরের সঙ্গে অনলাইন বৈঠকে অংশ নেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। এ সময় ফেসবুক কর্তৃপক্ষ শাবহানাজ রাশিদকে বাংলাদেশের জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসেবে উপস্থাপন করেন।

বৈঠকে অংশ নেন ফেসবুকের আঞ্চলিক নিরাপত্তা বিভাগের প্রধান বিক্রম সিং, জনসংযোগ নীতি পরিচালক অশ্বিনী রানা, মোবাইল পার্টনার শাখার ইরাম ইকবাল।

বাংলাদেশ সরকারের তরফ থেকে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ টেলি-যোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুস্তফা কামাল, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (করনীতি) সদস্য আলমগীর হোসাইন, প্রথম সচিব কাজি ফরিদ উদ্দীন প্রমুখ। বিটিআরসি’র শীর্ষ কর্মকর্তাদের মধ্যে আরও ছিলেন, জ্যেষ্ঠ সহকারী দুই পরিচালক তৌসিফ শাহরিয়ার এবং আমজাদ হোসাইন।

বৈঠকে অংশ নেয়া বক্তারা জানান, ভবিষ্যতে ফেসবুক বিটিআরসি ছাড়াও দেশের তথ্যপ্রযুক্তি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। বাংলাদেশে তাদের কার্যক্রম পরিচালনায় স্বচ্ছতা আনার স্বার্থে তারা প্রতিমাসে অন্তত একটি বৈঠকের উদ্যোগ নেবে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, ইতোমধ্যে ফেসবুক সিঙ্গাপুর অফিসের কর্মকর্তারা বাংলাদেশি নাগরিক দিয়া’র নিয়োগ সম্পর্কে অবহিত করেছিল। বাংলাদেশে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটির কনটেন্ট বিষয়ক সব ধরনের সমস্যা সমাধানে কাজ করবে দিয়া।

চস/আজহার

ads here