গণপিটুনির কোনো ঘটনায় ‘ছেলেধরা’র সম্পৃক্ততা মেলেনি

118
  |  বুধবার, জুলাই ২৪, ২০১৯ |  ৪:১২ অপরাহ্ণ
ads here

সন্দেহের জেরে দেশজুড়ে গণপিটুনির কোনো ঘটনাতেই ছেলেধরার সম্পৃক্ততা মেলেনি বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।
গুজব প্রতিরোধে বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) থেকে দেশজুড়ে সচেতনতা সপ্তাহ পালন করা হবে বলেও জানান তিনি।
বুধবার (২৪ জুলাই) পুলিশ সদর দফতরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানিয়ে আইজিপি বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়িয়ে গত কয়েকদিনে আটজনকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। দেশজুড়ে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনির প্রত্যেকটি ঘটনা আমরা বিশ্লেষণ করেছি। কোনো ঘটনাতেই ধৃত আহত ব্যক্তি কিংবা মৃত ব্যক্তিদের কেউই অপহরণকারী ছিলেন না।
গত ১৮ জুলাই নেত্রকোণায় রবিন নামে এক ব্যক্তির কাছে সজীব নামের এক ছেলের কাটা মাথা পাওয়া যায়। পরে গণপিটুনিতে রবিন নিহত হয়েছেন। মাদকাসক্ত রবিন তার স্ত্রীকেও একাধিকবার হত্যার চেষ্টা করেছিলেন, এ কারণে তার স্ত্রী চলে গেছে। নিহত শিশু সজীবের মরদেহ ময়নাতদন্তে দেখা গেছে, তাকে বলৎকার করা হয়েছিল। পারিপার্শ্বিক সব ঘটনা বিশ্লেষণ করে নিশ্চিত হওয়া গেছে, বলৎকার করার সময় প্রতিরোধ বা জানাজানির ভয়ে ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে সজীবকে খুন করা হয়েছিল।
সাভারে এবং নারায়ণগঞ্জে দুইজন বুদ্ধি ও বাক প্রতিবন্ধীকে পিটিয়ে মারা হলো। বাড্ডায় এক মাকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হলো।
আইজিপি বলেন, আমি দেশবাসীকে স্পষ্ট করে বলতে চাই, এটি গুজব এবং স্রেফ গুজব। কোনো ঘটনাতে ছেলেধরার অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যায়নি। বৃহস্পতিবার থেকে দেশজুড়ে সচেতনতা সপ্তাহ পালন করা হবে। সপ্তাহজুড়ে পুলিশের প্রতিটি সদস্য সব স্টেক হোল্ডারদের কাছে যাবেন। প্রশিক্ষিত সদস্যরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাবেন, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলবেন।
গুজব ছড়ানোর বিষয়টি পুলিশের নজরে আসার পর থেকেই বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়ার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে মাঠপর্যায়ে প্রতিটি ইউনিটকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। জনসাধারণকে উদ্বুদ্ধ করছি, যেকোনো পরিস্থিতিতে যেন পুলিশের সহায়তা নেন।
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর পাশে সাদা পোশাকে পুলিশ সদস্য মোতায়েনের চেষ্টা করছি। প্রত্যন্ত অঞ্চলে মাইকিং করা হচ্ছে, লিফলেট বিতরণ করা হচ্ছে। আগামী শুক্রবার জুমার নামাজের আগে খুতবায় এ বিষয়ে বয়ান দিতে মসজিদের ঈমামদের অনুরোধ করে পুলিশকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।
আইজিপি বলেন, চাঁদে মানুষ পৌঁছানোর ৫০ বছর হয়ে গেলো। কিন্তু সাঈদীকে চাঁদে দেখা যায় এটা বিশ্বাস করতে এমন লোকের অভাব হয় না। আমাদের দেশের মানুষ অত্যন্ত সহজ-সরল, তাদেরকে সহজেই বিভ্রান্ত করা যায়।
এ বিষয়টিকে কেন্দ্র করে একজন নিরাপরাধ মানুষও যেন হয়রানীর শিকার না হয়, গ্রেফতার না হয় সে বিষয়ে পুলিশ সচেতন রয়েছে বলেও জানান তিনি।
গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে আইন নিজের হাতে তুলে না নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে আইজিপি বলেন, গুজবে বিভ্রান্ত হয়ে গণপিটুনি দিয়ে আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না। আপনি নিজেও জানেন না, গণপিটুনিতে অংশ নিয়ে আপনি হত্যা মামলার আসামি হয়ে যাচ্ছেন। যে অপরাধে সর্বোচ্চ শাস্তির বিধান রয়েছে।
কেউ যদি এ ধরনের গুজব ছড়িয়ে পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর চেষ্টা করা হলে, সেই ব্যক্তি যেই হোন আর যেখানেই থাকেন তাকে খুঁজে বের করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান পুলিশের মহাপরিদর্শক ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।

ads here

 

 

চস/আজহার

ads here