উৎসবমুখর পরিবেশ বাফুফের নির্বাচনে

60
ads here

হোটেল সোনারগাঁওয়ে ঢুকতেই সুসজ্জিত বিলবোর্ড। জ্বলজ্বল করছে বর্তমান সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনসহ অন্যদের ছবি। কোনও ছবিতে আছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, আবার কোনটিতে ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। আর এই সবকিছুই বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের নির্বাচন ও কংগ্রেস ঘিরে। তাই হোটেল ভেন্যুর ভেতর-বাইরে বেজায় ভিড়। প্রার্থী ও ভোটার থেকে শুরু করে শুভাকাঙ্ক্ষীদের আগমন চোখে পড়ার মতো। এককথায় বাফুফে নির্বাচনে উৎসবের আমেজ।

ads here

দেশের অন্যতম জনপ্রিয় খেলা ফুটবল, যার নিয়ন্ত্রক বাফুফে। চার বছর পরপর এই সংস্থাটির নির্বাচন হয়ে থাকে। আজ (শনিবার) সেই দিন। নির্বাচনে পরিষ্কারভাবে দুটি প্যানেল অংশ নিচ্ছে। একটি হলো, বর্তমান সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনের নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত পরিষদ। অন্যটি শেখ মোহাম্মদ আসলামের নেতৃতে সমন্বয় পরিষদ। এছাড়া আছে একাধিক স্বতন্ত্র প্রার্থী।

সকাল ১১টা থেকে শুরু হয়েছে বার্ষিক কংগ্রেস। সেখানে বার্ষিক আয়-ব্যয়ের রিপোর্ট নিয়ে আলোচনা হবে। এরপরই দুপুর ২টা থেকে নির্বাচনের আসল কারযক্রম ভোট। সেখানে নির্বাহী পরিষদের ২১টি পদে দাঁড়িয়েছেন ৪৭ প্রার্থী। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত হবে ভোট গ্রহণ, এরপর গণনা।

প্রতিটি পদেই লড়াই হওয়ার ইঙ্গিত মিলেছে। সভাপতি পদে তিন জন, সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে দুইজন, সহ-সভাপতি পদে আটজন ও সদস্য পদে ৩৬ জন অংশ নিচ্ছেন।

নির্বাচন প্রসঙ্গে জাতীয় দলের সাবেক কোচ ও বুয়েটের প্রতিনিধি মারুফুল হক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেছেন, ‘বুঝছি না কী হবে। আসলে ভোটাররা কাকে রায় দেয় পরিষ্কার নয়। কেননা কী হয় বলা কঠিন। দেখি শেষ পর্যন্ত কী দাঁড়ায়।’

নাম প্রকাশ না করার শর্তে আরেক কাউন্সিলর বলেছেন, ‘যারা এতদিন কাজ করেছেন, ফুটবল উন্নয়নে ভূমিকা রেখে চলেছেন, তাদেরকেই আমরা ভোট দেবো।’

চস/আজহার

ads here