রিমান্ড শেষে কারাগারে ওসি প্রদীপের ডানহাত রুবেল

73
  |  বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ৮, ২০২০ |  ৩:১৫ অপরাহ্ণ
রিমান্ড শেষে কারাগারে ওসি প্রদীপের ডানহাত রুবেল
ads here
অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার প্রধান আসামি টেকনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাশের ডান হাত কনস্টেবল রুবেল শর্মার সাত দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় তাকে আদালতের কাছে হস্তান্তর করা হয়। সে সময় তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

ads here

সিনহা হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা র‌্যাব-১৫-এর সহকারী পুলিশ সুপার খায়রুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, ১৬৪ ধারা জবানবন্দি নয়, রিমান্ড শেষ হওয়ায় রুবেল শর্মাকে আদালতে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে সাত দিনের রিমান্ডে তার কাছ থেকে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলার অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে।

এদিকে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলায় ১৪ আসামির মধ্যে সর্বশেষ আসামি হিসেবে সংযুক্ত করা হয় রুবেল শর্মাকে। কথিত আছে, রুবেল শর্মা বরখাস্ত হওয়া কারাগারে থাকা টেকনাফ মডেল থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশের বিভিন্ন অপকর্মের অন্যতম সহযোগী ছিলেন।

এর আগে মাদক কারবারিদের ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে ও আত্মসমর্পণ করানোর নামে হাতিয়ে নেয়া অর্থ সরাতে গিয়ে ধরা পড়েন কনস্টেবল রুবেল শর্মার স্ত্রী লক্ষ্মী শর্মা। ৫ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় ব্যাগে করে টাকা পাচার করতে গিয়ে মেরিন ড্রাইভ সড়কের একটি চেকপোস্টে তিনি ধরা পড়েন।

এদিকে গত ৩০ সেপ্টেম্বর মামলার আইও র‌্যাব-১৫-এর সিনিয়র এএসপি মো. খায়রুল ইসলামের ১০ দিনের রিমান্ড আবেদনের প্রেক্ষিতে কক্সবাজারের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক তামান্না ফারাহ্ আবেদনের শুনানি শেষে রুবেল শর্মার সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। ২ অক্টোবর তাকে রিমান্ড হেফাজতে নেয়া হয়।

আরো পড়ুন: কক্সবাজারে গান গেয়ে ফেরার পথে কিশোরকে গুলি করে হত্যা

৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের বাহারছড়া শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। ওই ঘটনায় মামলা করেন নিহতের বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস। মামলায় প্রদীপ কুমার দাশসহ এর আগে ১৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়। রুবেল শর্মাকে নিয়ে আসামির সংখ্যা ১৪ জনে দাঁড়িয়েছে।

চস/স

ads here