spot_img

২রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, সোমবার
১৫ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক

সর্বশেষ

অবশেষে প্রশস্ত হচ্ছে কক্সবাজার-চট্টগ্রামের ৫৬ কিলো সড়ক

বঙ্গবন্ধু টানেল সংযোগ সড়ক থেকে চকরিয়া পর্যন্ত ৫৬ কিলোমিটার সড়ক অবশেষে প্রশস্ত হচ্ছে। এতে ব্যয় হবে ৩০০ কোটি টাকা। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, পটিয়া,আনোয়ারা,বাঁশখালী, টইটং সড়ক উন্নয়নের মাধ্যমে দক্ষিণ চট্টগ্রামের যোগাযোগ ব্যবস্থায় বড় পরিবর্তন আসবে। ১৮ ফুট থেকে ৩৪ ফুটে উন্নীত হবে এই সড়ক। টানেল হয়ে কক্সবাজারমুখী এই সড়কটি বড় হলে কক্সবাজার পর্যন্ত অর্থনৈতিক অঞ্চলের যে সম্ভাবনা তা আরো বেগবান হবে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগ সূত্র জানায়, পটিয়া,আনোয়ারা,বাঁশখালী, টইটং সড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের উন্নয়ন কাজ আগামী এক বছরের মধ্যে শুরু হবে। আনোয়ারার কালা বিবির দিঘি থেকে চকরিয়া পর্যন্ত ৫৬ কিলোমিটার সড়ক ১৮ ফুট থেকে ৩৪ ফুটে উন্নীত করার প্রস্তাব সংশ্লিষ্ট দপ্তরে প্রেরণ করা হয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে দক্ষিণ চট্টগ্রামের আনোয়ারা, বাঁশখালী ও চকরিয়াসহ কক্সবাজারের সাথে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থায় আরেকটি মাইলফল হিসেবে কাজ করবে। এতে লক্ষ লক্ষ মানুষ যাতায়াত ব্যবস্থায় সুফল ভোগ করবে। পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু টানেলে যানবাহন ব্যবহার বাড়বে বলে জানান চট্টগ্রাম দক্ষিণ সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সুমন সিংহ। চট্টগ্রাম দক্ষিণ সড়ক বিভাগ সূত্রে জানা যায়, বঙ্গবন্ধু টানেল ঘিরে দক্ষিণ চট্টগ্রামে সড়ক নেটওয়ার্ক ব্যবস্থা বাড়ানোর লক্ষ্যে ৩০০ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। সংশ্লিষ্টরা আশা করছেন, আগামী কয়েক মাসের মধ্যে প্রকল্পটি অনুমোদন পাবে। এরপর টেন্ডার প্রক্রিয়ায় যাবে। বর্তমানে আনোয়ারা উপজেলার পটিয়া, আনোয়ারা ও বাঁশখালী (পিএবি) সড়কের কালা বিবি দিঘির মোড়ের পর থেকে বাঁশখালী উপজেলার পুকুরিয়া ইউনিয়নের চাঁনপুর বাজার পর্যন্ত ১০০ ফুট ভূমি অধিগ্রহণ রয়েছে। চাঁনপুর বাজার থেকে চকরিয়া পর্যন্ত বর্তমানে ১৮ ফুট প্রশস্ত আছে। দক্ষিণ চট্টগ্রামের কয়েক উপজেলার লক্ষ লক্ষ মানুষ কক্সবাজার, কুতুবদিয়াসহ বিভিন্ন উপজেলায় যাতায়াত করে থাকেন। কিন্তু সড়কটি প্রয়োজনের তুলনায় প্রশস্ত না হওয়ায় যানজট ও দুর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করেন যাত্রীরা। সড়কটি ১৮ ফুট থেকে ৩৪ ফুট প্রশস্ত হলে নির্বিঘ্নে যাতায়াত করা যাবে এবং দুর্ঘটনার ঝুঁকি কমবে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সুমন সিংহ বলেন, বঙ্গবন্ধু টানেল ঘিরে দক্ষিণ চট্টগ্রাম সড়ক বিভাগের উদ্যোগে সড়ক যোগাযোগ নেটওয়ার্কে বৈপ্লবিক উন্নয়নে পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় ৩০০ কোটি টাকা ব্যয়ে পটিয়া,আনোয়ারা,বাঁশখালী, টইটং সড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের প্রস্তাব সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে অনুমোদনের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে প্রকল্পটি অনুমোদন শেষে টেন্ডার প্রক্রিয়া যাবে। আশা করছি, আগামী এক বছরের মধ্যে এ প্রকল্পের কাজ শুরু করা হবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে কক্সবাজারের সাথে চট্টগ্রামের বিকল্প সড়ক হিসেবে যোগাযোগ ব্যবস্থায় মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে। এই সড়কে যানজট ও দুর্ঘটনা অনেকাংশে কমে যাবে। লক্ষ লক্ষ মানুষ যোগাযোগ সুবিধা লাভ করবে।

 

চস/আজহার

Latest Posts

spot_imgspot_img

Don't Miss