spot_img

৭ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, শনিবার
২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক

সর্বশেষ

শিক্ষামন্ত্রীকে পরীক্ষার্থীর রোল নম্বর এসএমএস করে অভিভাবকের তদবির

এমবিবিএস পরীক্ষার্থীর রোল নম্বর দিয়ে শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীকে এক অভিভাবক তদবির করেছিলেন। এক শ্রেণির অভিভাবকদের নৈতিক অধঃপতনের বিষয়ে দুঃখপ্রকাশ করে শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, “এ বছর আমি মোবাইলে অনেক মেসেজ পেয়েছি। কারো সন্তান পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে, কিছু কি করা যাবে? এমনকি রোল নম্বরও দিয়েছে।”

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়েছে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। এ সংক্রান্ত বিষয়ে রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে ব্রিফ করেন শিক্ষামন্ত্রী। সেখানে গত ১০ ফেব্রুয়ারি মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার প্রসঙ্গে টেনে তিনি এসব কথা বলেন।

অভিভাবকদের এ ধরনের মানসিকতাকে “দুর্ভাগ্যজনক” আখ্যা দিয়ে শিক্ষামন্ত্রী নওফেল বলেন,, এ বছর মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় অনেক অভিভাবক আমাকে মোবাইলে মেসেজ পাঠিয়েছেন। তাদের ছেলে-মেয়েদের রোল নম্বরও পাঠিয়ে কিছু করা যাবে কিনা অনুরোধ করেছেন। আমাদের নৈতিকতা কোথায় গিয়ে ঠেকেছে। এটা অবশ্যই আমাদের জন্য লজ্জার বিষয়। এই ধরনের নৈতিক অধঃপতন যদি অভিভাবক পর্যায়ে হয় তাহলে আমরা ছেলে-মেয়েদের কী শিক্ষা দেব।

অভিভাবকদের অনুরোধ করে তিনি বলেন, অভিভাবকরা যেন তাদের নৈতিক অবস্থানে আপস না করেন।

প্রশ্নপত্র ফাঁসের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, “একটা গোষ্ঠী পরীক্ষার সময় সরকারের দক্ষতা প্রশ্নবিদ্ধ করতে রাজনৈতিক মানসিকতা থেকে অপপ্রপচার করে। আরেকটি গোষ্ঠী প্রতারণা করে, প্রশ্নফাঁসের প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ আদায় করে। অথচ প্রশ্নফাঁস হয়নি।”

এ বিষয়ে সরকার সজাগ দৃষ্টি রাখছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, কেউ প্রশ্নফাঁস করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নতুন কারিকুলাম নিয়ে তিনি বলেন, নতুন কারিকুলামে অভিভাবকরা যেন শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন সহজেই বুঝতে পারেন সে বিষয়ে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।

স্মরণশক্তির মূল্যায়নের পরিবর্তে প্রায়োগিক দক্ষতার মূল্যায়নের দিকে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। নতুন কারিকুলামের মূল্যায়ন পদ্ধতি নম্বর বা সংখ্যায় রূপান্তর করে অভিভাবকদের কাছে তুলে ধরার বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা চলছে বলেও জানান শিক্ষামন্ত্রী।

উল্লেখ্য, দেশব্যাপী ৩,৭০০ কেন্দ্রে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় একযোগে মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়। ১১টি শিক্ষাবোর্ড থেকে এবারের পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে ২০ লাখ ২৪ হাজার ১৯২ জন পরীক্ষার্থী। প্রথম দিন এসএসসিতে বাংলা প্রথমপত্র, দাখিলে কোরআন মাজিদ ও তাজভিদ এবং এসএসসি (ভোকেশনাল) ও দাখিলে (ভোকেশনাল) বাংলা-২ বিষয়ের পরীক্ষা হয়।

চস/আজহার

Latest Posts

spot_imgspot_img

Don't Miss