spot_img

৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, শুক্রবার
২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সর্বশেষ

শিক্ষার্থীদের ‘স্মার্ট বাস সার্ভিস’র রেজিস্ট্রেশন শুরু

শিক্ষার্থীদের জন্য ‘স্মার্ট বাস সার্ভিস’ কার্যক্রমের রেজিস্ট্রেশন ফরম বিতরণ শুরু হয়েছে বন্দর নগরী চট্টগ্রামে।

মঙ্গলবার (২২ আগস্ট) সকাল থেকে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের দেয়া শিক্ষার্থীদের ১০টি বাসে ফরম বিতরণ করা হয়।

মূলত কিছুদিন আগে অভিভাবকদের দুশ্চিন্তা দূর করতে চট্টগ্রাম শহরে শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ১০টি দ্বিতল বাসকে ‘স্মার্ট বাসে’ রূপান্তর করার সিদ্ধান্ত নেয় জেলা প্রশাসন। পরবর্তীতের সিদ্ধান্ত গ্রহণের পর তা যৌথভাবে বাস্তবায়নের পথে হাঁটা শুরু করে জেলা প্রশাসন ও পিউপিল স্মার্ট বাস লিমিটেড।

স্কুল বাস মনিটরিং টিমের কো-অর্ডিনেটর মিনহাজ চৌধুরী বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা বেশ হাসিমুখেই ফরম সংগ্রহ করছে। আজ প্রায় সবকটি বাসেই ফরমগুলো বিতরণ করা হয়েছে। ফরমগুলো আমাদের টিমের সদস্য সাজ্জাদুল ইসলাম সোহাগ, শাকিল মাহামুদ, আরিফ উদ্দিন, নাহিদুল ইসলাম, সামিয়া আমিন বিতরণ করেন।

যেসকল সুবিধা থাকছে ‘স্মার্ট বাসে’
১) এআই (Artificial Intelligence) বেইজড স্মার্ট এপ্সের মাধ্যমে বাচ্চাদের অবস্থান ট্রেকিং সুবিধা, এসএমএস বা পুশ নোটিফিকেশনের মাধ্যমে বাচ্চার ও গাড়ির অবস্থান সম্পর্কে জানতে পারবেন অভিভাবকগণ, সিসিটিভি কানেক্টেড থাকবে, তাই সহজে বাচ্চাদের গতিবিধি পর‌্যবেক্ষণ করতে পারবেন।
২) স্বল্প খরচে পরিবহণ সুবিধা।
৩) দক্ষ ও প্রশিক্ষিত ড্রাইভার।
৪) ঘরে বসে রেজিস্ট্রেশন ও ক্যাশলেস পেমেন্ট সুবিধা।

পিউপিল স্কুল স্মার্ট বাস লিমিটেডের সিইও আবদুর রশীদ সোহাগ বলেন, ‘মোট ৩০০০ কপি ফরম শিক্ষার্থীদের জন্য দেয়া হয়েছে বাসগুলোতে। সেখান থেকেই ফরম সংগ্রহ করে ফরমে উল্লেখিত ১০ ধরণের তথ্য প্রদানপূর্বক করে তা জমা দিতে হবে। আজকে থেকে স্মার্ট বাস সার্ভিসের ফরম বিতরণ শুরু হয়েছে। একইসাথে চট্টগ্রামে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের দেয়া বাসগুলোকে স্মার্ট বাসে রুপান্তরের কাজও চলছে।’

চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মো.ফখরুজ্জামান বলেন, ‘রেজিস্ট্রেশন করার পর অভিভাবকেরা তার সন্তানের জন্য একটি স্মার্ট কার্ড পাবেন। আর পেমেন্ট হবে সম্পূর্ণ ক্যাশলেস। তবে কতটাকা ভাড়া হবে তা এখনো নির্ধারণ হয়নি, হয়তো সর্বোচ্চ ৫ টাকা হতে পারে যে কোনো দূরত্বে’।
বাসের সংখ্যা বাড়ানো নিয়ে কোনো পরিকল্পনা আছে কি না জেলা প্রশাসক বলেন, ‘বন্দর-আগ্রাবাদ-হালিশহর এলাকার বিপুল সংখ্য ছেলে-মেয়েরা চায় স্কুল বাসটি তাদের জন্য চালু হোক। আমরা মন্ত্রণালয়ে চিঠি লেখার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। আমরা বিআরটিসিকেও চিঠি দেব। নতুন করে আরো ১০টি বাস যদি আমরা পায়, তাহলে নতুন ১০টি রুটে আমরা বাস চালু করবো ইনশাআল্লাহ্।

 

চস/আজহার

Latest Posts

spot_imgspot_img

Don't Miss