spot_img

৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার
১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সর্বশেষ

এক মাস পর যান চললো বান্দরবান-থানচি সড়কে

স্মরণকালে ভয়াবহ অতিবৃষ্টি ও পাহাড় ধসের কারণে আগস্টের প্রথম সপ্তাহে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে বান্দরবান- থানচি যোগাযোগ ব্যবস্থা। প্রায় এক মাস পর বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রকৌশল বিভাগের ২০ ইসিবির সদস্যরা সড়কটির সংস্কারে যোগাযোগ ব্যবস্থা আবারও স্বাভাবিক হয়ে ওঠে।

বুধবার (৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে পরে ওই রুটে যানচলাচল শুরু হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন থানচি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাঃ আবুল মনসুর।

বান্দরবানের থানচি লাইনের টিকেট কাউন্টার ম্যানেজার মোঃ সাহাব উদ্দিন জানান, থানচি সড়ক যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে। আজ থেকে বাস ছাড়ার চিন্তা রয়েছে।

সড়কটি সংস্কারের দ্বায়িত্বে থাকা বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ২০ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশন ব্যাটালিয়ন (২০ইসিবি)”র ওয়ারেন্ট অফিসার রাহুল হাসান পার্থ জানান, বান্দরবান- থানচি সড়কের পাতুই পাড়া পোড়া বাংলা এলাকায় অতিবৃষ্টির কারণে সড়ক ধসে গিয়ে গত মাসের ৭ আগষ্ট থেকে বান্দরবান-থানচি সড়ক যোগাযোগ বন্ধ ছিল। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ২০ইসিবি ধসে যাওয়া সড়কের স্থান গুলোতে যোগাযোগ স্বাভাবিক করতে পাহাড় কাটিং করে বিকল্প ব্রিক সলিন সড়ক তৈরির কাজটি সম্পন্ন হয়েছে। ৬সেপ্টেম্বর দুপুর থেকে গাড়ী চলাচলের জন্য সড়ক উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। ফলে আজ থেকে স্বাভাবিকভাবে বান্দরবান-থানচি সড়ক যোগাযোগের কোন প্রকার সমস্যা নেই। এখন অনায়াসে যে কেউ থানচি ভ্রমণে যেতে পারবেন বলে জানান এই কর্মকর্তা।

থানচি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাঃ আবুল মনসুর জানান, ৬ সেপ্টেম্বর থেকে ওই সড়কে ছোট গাড়িগুলো (জীপ বা পর্যটকবাহী চাঁদের গাড়ী) চলাচল করছে। পরবর্তীতে ভারী যান চলাচল করতে পারবে বলে আশ্বাস দেন।

উল্লেখ্য যে গত মাসের প্রথম সপ্তাহে অতিবৃষ্টিপাতের কারণে বান্দরবান-রুমা-থানচি সড়কের বিভিন্ন স্থানে পাহাড় ধসে ও সড়ক ভেঙে গিয়ে বিশেষ করে বান্দরবান-থানচি সড়কের চিম্বুক-নীলগিরি সড়কের মধ্যে খানে পাতুই পাড়া-পোড়া বাংলা এলাকায় প্রায় ১শ মিটার সড়ক ভেঙে গিয়ে গত ৭ আগষ্ট থেকে বান্দরবান-থানচি সড়ক ১মাস ধরে সড়ক যোগাযোগ সম্পূর্ণরুপে বন্ধ ছিল।

চস/স

Latest Posts

spot_imgspot_img

Don't Miss