spot_img

৭ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, শনিবার
২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক

সর্বশেষ

‘জয় বাংলা’ কনসার্টে প্রবেশে মানতে হবে ১৪ নির্দেশনা

আগামী ৭ মার্চ প্রথমবারের মতো চট্টগ্রামে আয়োজন হতে যাচ্ছে ‘জয় বাংলা’ কনসার্ট। বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণকে কেন্দ্র করে সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) তারুণ্যের প্লাটফর্ম ইয়াং বাংলা আয়োজিত ‘জয় বাংলা’ কনসার্ট ২০১৫ সাল থেকে ঢাকার আর্মি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হলেও এবার চট্টগ্রামে আয়োজন হওয়ার খবরে খুশিতে মাতোয়ারা চট্টগ্রামের তরুণরা। ইতিমধ্যে কনসার্টকে ঘিরে ১৪টি নির্দেশনা দিয়েছে আয়োজকরা।

বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এসব নির্দেশনা দেওয়া হয়। কনসার্টের তত্ত্বাবধানে থাকবে চট্টগ্রাম জেলা ও পুলিশ প্রশাসন।

৭ই মার্চ (বৃহস্পতিবার) নগরীর এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে এই কনসার্ট। এতে কার্নিভাল, তীরন্দাজ, আর্টসেল, নেমেসিস, চিরকুট’র মতো জনপ্রিয় ব্যান্ড দলগুলো মাতাবে আসর। তবে দলগুলোর চূড়ান্ত তালিকা এখনও প্রকাশিত হয়নি।

যেভাবে সংগ্রহ করা যাবে টিকিট
দর্শকরা এই টিকিট সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সংগ্রহ করতে পারবেন। ইয়াং বাংলার ওয়েবসাইট বা ফেইসবুক পেইজ থেকে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। এজন্য জাতীয় পরিচয়পত্র, পাসপোর্ট অথবা জন্মনিবন্ধন সনদ, মোবাইল নম্বর এবং ইমেইল অ্যাড্রেস দিতে হবে। অনলাইনেই নিবন্ধন হলেই পাওয়া যাবে প্রবেশ টিকিট।

‘জয় বাংলা কনসার্ট ২০২৪’ এ প্রবেশের শর্তাবলি
১. মূল ফটকে টিকিটের প্রাথমিক স্ক্রীনিং হবে, তারপর স্টেডিয়ামের নম্বরযুক্ত গেটে স্ক্যান করা হবে।
২. বারকোড স্ক্যানার দ্বারা পাঠযোগ্য হতে হবে। একটি পঠনযোগ্য বারকোড ছাড়া, ভেন্যুতে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না।
৩. গেট ১২:০০ p.m. এ খুলবে একবার অনুষ্ঠানস্থলে প্রবেশ করলে পুনরায় প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না।
৪. ১২ (বার) বছরের কম বয়সী শিশুদের অনুষ্ঠানে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না।
৫. বাইরের কোন খাবার বা পানীয় অনুমোদিত হবে না। অনুষ্ঠানস্থলে উপযুক্ত মূল্যে খাবার ও পানি পাওয়া যাবে।
৬. অনুষ্ঠানস্থলের ভিতরে কোন প্রকার তামাক বা তামাকজাত দ্রব্য প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।
৭. ধারণক্ষমতা পূর্ণ হলে আয়োজকরা যেকোনো মুহূর্তে প্রবেশ বন্ধ করার অধিকার সংরক্ষণ করেন।
৮. নিরাপত্তা হুমকি হিসাবে বিবেচিত হলে আয়োজকরা প্রবেশ প্রত্যাখ্যান করার বা প্রাঙ্গণ থেকে কাউকে সরিয়ে দেওয়ার অধিকার সংরক্ষণ করেন।
৯. আয়োজকরা সময়ে সময়ে নিরাপত্তা তল্লাশি চালানোর অধিকার সংরক্ষণ করে এবং শ্রোতাদের অন্যান্য সদস্যদের বিপদ বা বিরক্তির কারণ হতে পারে এমন যেকোনো বিষয় বাজেয়াপ্ত করার অধিকার সংরক্ষণ করে।
১০. অনুষ্ঠানস্থলে সিসিটিভি ও ক্যামেরা চালু থাকবে। টিকিটধারী শ্রোতাগণ নিজেরা চিত্রগ্রহণ এবং ভিডিও রেকর্ডিং করলে সেখানে কতৃপক্ষের কোন বিধিনিষেধ থাকবে না।
১১. ফোনের ক্যামেরা ব্যতীত অন্য যে কোন ধরণের ক্যামেরা কঠোরভাবে নিষিদ্ধ। আয়োজকরা এই জাতীয় আইটেম বাজেয়াপ্ত করার অধিকার সংরক্ষণ করেন। যেমন মোবাইল ফোন চার্জার, হেডফোন, ব্লুটুথ স্পিকার, পাওয়ার ব্যাংক।
১২. নিরাপত্তার স্বার্থে অনুষ্ঠানস্থলের ভিতরে ইলেকট্রনিক সিগারেট, ভ্যাপ এবং এই ধরনের কোনো বৈদ্যুতিক যন্ত্রের অনুমতি দেওয়া হবে না।
১৩. অনুষ্ঠানস্থলের ভিতরে কোনো ধরনের ব্যাগ রাখা যাবে না, ব্যাগ/ব্যাগ বহনকারী ব্যক্তিদের অবিলম্বে প্রাঙ্গণ ছেড়ে যেতে বলা হবে। (অনুষ্ঠানে ব্যাগ রাখার কোনো সুবিধা থাকবে না।
১৪. মহিলাদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হচ্ছে ১০ ইঞ্চি বাই ৬ ইঞ্চির চেয়ে বড় পার্স না আনতে। এর চেয়ে বড় কোনো ব্যাগ ভিতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।

চস/আজহার

Latest Posts

spot_imgspot_img

Don't Miss