spot_img

৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, সোমবার
২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সর্বশেষ

দেশে ফিরেই গ্রেপ্তার থাকসিন সিনাওয়াত্রা

দীর্ঘ ১৫ বছর স্বেচ্ছানির্বাসনের পর থাইল্যান্ডের সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রা নিজ দেশে ফেরাই পরেই গ্রেপ্তার হয়েছেন। খবর আল-জাজিরার।

মঙ্গলবার (২২ আগস্ট) স্থানীয় সময় সকাল ৯টায় থাকসিনকে বহনকারী একটি ব্যক্তিগত উড়োজাহাজ ব্যাংককের ডন মুয়াং বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

থাকসিনকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরের বাইরে তার শত শত সমর্থক জড়ো হন। তারা হাতে থাকা প্ল্যাকার্ড-ব্যানার নেড়ে ও গান গেয়ে থাকসিনকে অভ্যর্থনা জানান।

দেশে ফেরার পর রাজার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন থাকসিন। এর কিছুক্ষণ পরই পুলিশ তাকে সুপ্রিম কোর্টে নিয়ে যায়। সেখানে তার বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার এবং অন্যান্য ফৌজদারি অপরাধের অভিযোগ আনা হয়।

তবে এসব অভিযোগকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে আখ্যায়িত করেন তিনি।

এদিকে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, পুলিশ বলেছেন, থাকসিনকে ব্যাংককের কারাগারে নিয়ে যাওয়া হবে।

থাকসিনের আগমন উপলক্ষে তার মেয়ে পেতংতার্ন সিনাওয়াত্রা তার ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টে একটি পারিবারিক ছবি পোস্ট করে লিখেন, ‘আবারো থাইল্যান্ডে স্বাগতম বাবা।’

থাইল্যান্ডের দুবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী ছিলেন থাকসিন। ২০০৬ সালে এক সামরিক অভ্যুত্থানে তিনি ক্ষমতাচ্যুত হন। ‘দুর্নীতির’ মামলায় কারাগারে যাওয়া এড়াতে ২০০৮ সালে থাকসিন দেশ ছাড়েন। তার পর থেকে তিনি দেশের বাইরে স্বেচ্ছানির্বাসনে ছিলেন।

থাইল্যান্ডে বেশ কয়েক মাস ধরে রাজনৈতিক অস্থিরতা চলছে। থাকসিনের দেশে ফেরার ফলে পরিস্থিতি আরও উত্তেজনাপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। গত মে মাসে থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত পার্লামেন্ট নির্বাচনে থাকসিনের মেয়ে পেতংতার্নের দল ফেউ থাই দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেন।

চস/স

Latest Posts

spot_imgspot_img

Don't Miss